বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ঝাড়খণ্ডের বিধায়কদের থেকে টাকা উদ্ধারে CBI তদন্তের আবেদন খারিজ করল হাইকোর্ট
কলকাতা হাইকোর্ট। ফাইল ছবি (HT_PRINT)

ঝাড়খণ্ডের বিধায়কদের থেকে টাকা উদ্ধারে CBI তদন্তের আবেদন খারিজ করল হাইকোর্ট

  • গত শনিবার হাওড়ার পাঁচলায় রানিহাটি মোড়ে ৬ নম্বর জাতীয় সড়কের ওপর একটি গাড়ি থেকে উদ্ধার হয় ৪৯ লক্ষ নগদ। ওই গাড়িতে ছিলেন ঝাড়খণ্ডের ৩ বিধায়ক। অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে পুলিশ। এর পর এই ঘটনার তদন্তভার সিআইডির হাতে তুলে দেয় রাজ্য সরকার।

হাওড়ার পাঁচলায় গাড়ি থেকে টাকা উদ্ধারকাণ্ডে ঝাড়খণ্ডের অভিযুক্ত ৩ বিধায়কের দায়ের করা সিবিআই তদন্তের আবেদন খারিজ করে দিল কলকাতা হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার মামলার শুনানিতে বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য স্পষ্ট জানিয়ে দেন এই মামলার তদন্ত করতে CID-র কোনও এক্তিয়ারগত সমস্যা নেই। এই ঘটনার তদন্ত দ্রুত শেষ করে রিপোর্ট জমা দিতে বলেছেন বিচারপতি।

গত শনিবার হাওড়ার পাঁচলায় রানিহাটি মোড়ে ৬ নম্বর জাতীয় সড়কের ওপর একটি গাড়ি থেকে উদ্ধার হয় ৪৯ লক্ষ নগদ। ওই গাড়িতে ছিলেন ঝাড়খণ্ডের ৩ বিধায়ক। অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে পুলিশ। এর পর এই ঘটনার তদন্তভার সিআইডির হাতে তুলে দেয় রাজ্য সরকার। উলটো দিকে সিআইডি তদন্তে স্থগিতাদেশ ও সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেওয়ার দাবি জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন বিধায়করা। এরই মধ্যে ওই তিন বিধায়ককে বহিষ্কার করে কংগ্রেস।

ডাকাতির আগে হাত জোড় করে নমস্কার, এনকাউন্টারের পরে গ্রেফতার ২

বৃহস্পতিবার এই মামলার শুনানিতে আবেদনকারীদের তরফে দাবি করা হয়, এই ঘটনার তদন্ত করার এক্তিয়ার সিআইডির নেই। এমনকী রাজ্য পুলিশও এই ঘটনার তদন্ত করতে পারে না। যেহেতু এই ঘটনায় একাধিক রাজ্য যুক্ত তাই সিবিআই এই ঘটনার তদন্ত করার উপযুক্ত এজেন্সি। তাছাড়া এই মামলার দায়েরের ক্ষেত্রে পুলিশের প্রক্রিয়াগত ত্রুটি রয়েছে। তাই সিআইডি তদন্তে স্থগিতাদেশ দিয়ে অবিলম্বে তদন্তভার সিবিআই বা কোনও কেন্দ্রীয় সংস্থাকে দিক আদালত।

কিন্তু এই বক্তব্য খারিজ করে বিচাকপতি ভট্টাচার্য বলেন, এই মামলার তদন্ত করার সম্পূর্ণ অধিকার সিআইডির রয়েছে। সিআইডিই এই ঘটনার তদন্ত করবে। দ্রুত তদন্ত শেষ করে রিপোর্ট জমা দেবে তারা। এক্ষেত্রে সিবিআই বা কোনও কেন্দ্রীয় সংস্থার তদন্তের প্রয়োজন নেই।

চটির পর দিন প্রণাম পেলেন পার্থ, অনুগামীকে বললেন, ‘তোরা ভালো থাকিস’

গত শনিবার বিকেলে হাওড়ার পাঁচলার রানিহাটি মোড়ে একটি গাড়িতে তল্লাশি চালায় পুলিশ। গাড়ির সামনে ছিল ঝাড়খণ্ডের জামতাড়ার কংগ্রেস বিধায়কের বোর্ড। গাড়ির ডিকি থেকে উদ্ধার হয় ৪৯ লক্ষ টাকা নগদ। এই ঘটনার তদন্তে নেমে সিআইডির দাবি, অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার নির্দেশে ঝাড়খণ্ডের বিধায়কদের ওই টাকা দিয়েছিলেন মহেন্দ্র আগরওয়াল নামে কলকাতার এক ব্যবসায়ী। ঝাড়খণ্ডের JMM – কংগ্রেস সরকার ফেলতে বিজেপি এই টাকা দিয়েছিল বলে দাবি তাদের। তবে বিধায়করা জানিয়েছেন, আদিবাসী উৎসবের আগে শাড়ি কিনতে টাকা নিয়ে বড়বাজারে যাচ্ছিলেন তাঁরা। এই ঘটনায় ৩ বিধায়ক ছাড়া অভিযুক্ত ব্যবসায়ী ও তার এক সঙ্গীকে গ্রেফতার করেছে CID।

 

বন্ধ করুন