বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > পাঁচলায় টাকা উদ্ধারকাণ্ডে মধ্য কলকাতার হোটেলে তল্লাশি সিআইডির
ঝাড়খণ্ডের কংগ্রেসি বিধায়কদের গাড়ি থেকে উদ্ধার হওয়া টাকা।

পাঁচলায় টাকা উদ্ধারকাণ্ডে মধ্য কলকাতার হোটেলে তল্লাশি সিআইডির

  • সিআইডি সূত্রে খবর, শনিবার দুপুর ৩টে নাগাদ মধ্য কলকাতার সদর স্ট্রিটের একটি হোটেলে যান ঝাড়খণ্ডের ৩ কংগ্রেসি বিধায়ক ইরফান আনসারি, রাজেশ কচ্ছপ ও নমন বিকসাল। সেখানে হোটেলের একটি ঘরে কয়েক মিনিট ছিলেন তাঁরা। এর পর হোটেল সংলগ্ন বারে ঢোকেন তাঁরা।

ঝাড়খণ্ডের কংগ্রেস বিধায়কদের গাড়ি থেকে টাকা উদ্ধারের ঘটনার তদন্তে মধ্য কলকাতার সদর স্ট্রিটের হোটেলে হানা দিল সিআইডির দল। অভিযোগ, হাওড়ায় পাঁচলায় গাড়িসহ ধরা পড়ার আগে এই হোটেলেই এসেছিলেন ৩ বিধায়ক। তাদের সঙ্গে দেখা গিয়েছে আরও ১ জনকে। চতুর্থ সেই ব্যক্তির খোঁজ শুরু করেছেন গোয়েন্দারা।

সিআইডি সূত্রে খবর, শনিবার দুপুর ৩টে নাগাদ মধ্য কলকাতার সদর স্ট্রিটের একটি হোটেলে যান ঝাড়খণ্ডের ৩ কংগ্রেসি বিধায়ক ইরফান আনসারি, রাজেশ কচ্ছপ ও নমন বিকসাল। সেখানে হোটেলের একটি ঘরে কয়েক মিনিট ছিলেন তাঁরা। এর পর হোটেল সংলগ্ন বারে ঢোকেন তাঁরা। তখন সেখানে হাজির ছিল চতুর্থ এক ব্যক্তি। তিনি বিধায়কদের হাতে একটি ব্যাগ তুলে দেন। এর পর একটি স্কুটারে করে হোটেল থেকে বেরিয়ে যান তিনি। ততক্ষণ বিধায়কদের গাড়িটি হোটেলের পার্কিংয়েই ছিল।

হোটেলের এক কর্মচারী সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ওই তিন বিধায়ক শৌচাগার ব্যবহারের অনুমতি চাইছিলেন। তাই তাঁদের একটি ঘর খুলে দেওয়া হয়েছিল। ওই ঘরে ৫ – ৬ মিনিট ছিলেন তাঁরা। তার পর বেরিয়ে গিয়ে বসেন সামনের পানশালায়। ওদিকে হোটেলের রেজিস্ট্রার খাতায় বিধায়কদের নাম নথিভুক্ত নেই। তবে সিসিটিভি ফুটেজে তাদের স্পষ্ট দেখা গিয়েছে। এমনকী হোটেলের গাড়ির খাতায় বিধায়কদের গাড়ির নম্বরও লেখা রয়েছে।

সোমবার সকালে হোটেলে পৌঁছয় সিআইডির তদন্তকারী দল। হোটেলের রেজিস্ট্রার খাতা পরীক্ষা করে তারা। জিজ্ঞাসাবাদ করে কর্মচারীদের। ওই হোটেলের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহের চেষ্টা করছেন গোয়েন্দারা। কে ওই তিন বিধায়কের সঙ্গে দেখা করতে ব্যাগ নিয়ে এসেছিল তা জানার চেষ্টা চালাচ্ছে সিআইডি। ব্যাগের ভিতরে টাকাই ছিল কি না সেব্যাপারে নিশ্চিত হতে চাইছেন তারা।

 

বন্ধ করুন