বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ৩০ বছর পর আধুনিকতার ছোঁয়া পেতে চলেছে খিদিরপুর ডক, বসবে বড় বড় ক্রেন

৩০ বছর পর আধুনিকতার ছোঁয়া পেতে চলেছে খিদিরপুর ডক, বসবে বড় বড় ক্রেন

খিদিরপুর ডক । ছবি সৌজন্যে ফেসবুক।

খিদিরপুর ডক আধুনিকীকরণের জন্য মোট ১১৭ কোটি টাকা খরচ ধার্য করা হয়েছে। দুটি দফায় এই অর্থ খরচ করে আধুনিকীকরণের কাজ করা হবে।

আধুনিকতার ছোঁয়া পেতে চলেছে খিদিরপুর ডক। একেবারে অত্যাধুনিক মানের করা হবে কলকাতার শ্যামাপ্রসাদ বন্দরের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে থাকা এই খিদিরপুর ডককে। জাহাজ থেকে পণ্য ওঠানামার জন্য বসানো হবে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ক্রেন। নাব্যতা বৃদ্ধি করা হবে ডকের। পিপিপি মডেলে চলবে আধুনিকীকরণ করার কাজ। এর জন্য বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। সূত্রের খবর, এই কাজে সাহায্য করবে বেসরকারি সংস্থা।

শ্যামাপ্রসাদ কলকাতা বন্দরের সঙ্গে খিদিরপুর ডকের যোগসূত্র রয়েছে সেই ১৮৮২ সাল থেকে। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এর আগে এই ডকের আধুনিকীকরণ করা হয়েছিল ৩০ বছর আগে। তারপর আর এই ডকের সংস্কার সে ভাবে করা হয়নি। তবে বর্তমানে খিদিরপুর ডকের গুরুত্ব উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। সেই কারণে খিদিরপুর ডকের আধুনিকীকরণের প্রয়োজন রয়েছে বলে মনে করছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

এর জন্য ইতিমধ্যেই টেন্ডার ডাকার কাজ শেষ হয়েছে। খিদিরপুর ডক আধুনিকীকরণের জন্য মোট ১১৭ কোটি টাকা খরচ ধার্য করা হয়েছে। দুটি দফায় এই অর্থ খরচ করে আধুনিকীকরণের কাজ করা হবে। যার মধ্যে প্রথম দফায় ৯৫ কোটি ৬৬ লাখ টাকা এবং দ্বিতীয় দফায় ৬৬ কোটি ১৫ লক্ষ টাকা খরচ করা হবে বলে বন্দরের চেয়ারম্যান বিনীত কুমার জানিয়েছেন। সম্প্রতি এই কাজের জন্য টেন্ডার ডাকা হয়েছিল। সেখানে বেশ কিছু আবেদন জমা পড়েছিল। যার মধ্যে একটি সংস্থাকে ইতিমধ্যেই বেছে নেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন। আগামী এক বছরের মধ্যে এই কাজ শেষ করার পরিকল্পনা রয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষের।

 

বন্ধ করুন