বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > রোবটের সাহায্যে কিডনি প্রতিস্থাপন, নজির গড় কলকাতার হাসপাতাল
রোবটের সাহায্যে কিডনি প্রতিস্থাপন, নজির গড় কলকাতার হাসপাতাল। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
রোবটের সাহায্যে কিডনি প্রতিস্থাপন, নজির গড় কলকাতার হাসপাতাল। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

রোবটের সাহায্যে কিডনি প্রতিস্থাপন, নজির গড় কলকাতার হাসপাতাল

এই প্রক্রিয়ায় মাত্র আড়াই ইঞ্চির একটা ফুটো করা হয় নাভির পাশে। তলপেটে চারটে ছোট ছোট পিঁপড়ের আকৃতির গর্ত করা হয়।

‌কিডনির বিকল দশা নিয়ে বহুদিন ধরেই ডায়ালিসিস চলছিল কলকাতার এক বাসিন্দার। শেষপর্যন্ত রোবটের সাহায্যে পূর্ব ভারতের প্রথম কিডনি প্রতিস্থাপন হল এই কলকাতাতেই। এই শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে এই সফল প্রতিস্থাপনটি হয়। হাসপাতাল সূত্রে খবর, বিরল এই অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে। চিকিৎসকদের মতে, রোবটের মাধ্যমে কিডনির এই সফল প্রতিস্থাপন হলে দ্রুত রোগী সুস্থ হয়ে উঠতে পারবেন।

বেসরকারি হাসপাতালের ল্যাপ্রোস্কপিক সার্জেন ডঃ বিনয় মাহীন্দ্রা জানান, ‘‌কিডনি যখন একশভাগ কাজের মধ্যে একভাগ সম্পন্ন করতে পারে, তখন সেটাকে বলা হয় শেষ পর্যায়ের কিডনি রোগ। কিডনি প্রথম পর্যায়ে বিকল হলে নিয়মিত ডায়ালিসিস করতে হয়। এদিন যার এই অস্ত্রোপচার হয়েছে, সেই ব্যক্তিরও সেটাই চিকিৎসাই হয়েছিল। কিন্তু তাঁর কিডনি প্রতিস্থাপনের খুব প্রয়োজন ছিল।’‌ কিডনি প্রতিস্থাপন করতে হলে তলপেটে বড়সড় গর্ত করতে হয়। গর্ত না করলে পাঁচ ইঞ্চির কিডনিকে ঢোকানো যায় না। সেই কারণে অস্ত্রোপচারের শুরুর দিকে চিকিৎসকরা খুব চিন্তায় ছিলেন। তখনই চিকিৎসকরা ঠিক করেন, রোবটের মাধ্যমে অস্ত্রোপচার করা হবে। এই প্রক্রিয়ায় মাত্র আড়াই ইঞ্চির একটা ফুটো করা হয় নাভির পাশে। তলপেটে চারটে ছোট ছোট পিঁপড়ের আকৃতির গর্ত করা হয়।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, অক্টোপাসের মতো যান্ত্রিক হাতে শুরু হয় এই বিরল সার্জারি। সাধারণ অস্ত্রোপচারের থেকে রোবটের মাধ্যমে এই অস্ত্রোপচারে বেশি সময় লাগে ঠিকই, কিন্তু রোবটের মাধ্যমে প্রতিস্থাপনের ফলে দ্রুত রোগী সুস্থ হয়ে ওঠেন। চিকিৎসকদের মতে, আগামী ২০ থেকে ২৫ বছর সুস্থই থাকতে পারবেন তিনি। প্রথম তিন মাসে সপ্তাহে একবার তাঁকে চেকআপে আসতে হবে। পরের তিন মাস দু'সপ্তাহে একবার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করলেই যথেষ্ট।

বন্ধ করুন