বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কাজু, পেস্তা, ডিম, সোয়াবিন - অসহায় ‌করোনা রোগীর কাছে খাবার পৌঁছে দিচ্ছে KMC
কলকাতা পুরনিগমের কেন্দ্রীয় কার্যালয় (ফাইল ছবি, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
কলকাতা পুরনিগমের কেন্দ্রীয় কার্যালয় (ফাইল ছবি, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

কাজু, পেস্তা, ডিম, সোয়াবিন - অসহায় ‌করোনা রোগীর কাছে খাবার পৌঁছে দিচ্ছে KMC

ফোন করে ইন্দ্রণীল জানান, তিনি ও তাঁর মা দুজনেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। খাবারের বন্দোবস্ত করার জন্য তাঁদের পরিবারে আর কেউ নেই।

অসহায় করোনা রোগীর কাছে পুষ্টিকর খাবার পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ নিল কলকাতা পুরনিগম। বিনামূল্যে সেই খাবার পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুরনিগম।

কলকাতা পুরনিগমের এই খাবার পাঠানোর তালিকায় রয়েছে ১১টি সামগ্রী। সেই ১১টি সামগ্রীর মধ্যে চিঁড়ে, মুড়ি, চিনি, গুড়, বিস্কুট, ছাতু, চানাচুর তো আছেই, সেইসঙ্গে রয়েছে সোয়াবিন, ডিম, কাজু, পেস্তার মতো সামগ্রীও। পুরনিগমের তরফে এই খাবার অসহায় করোনা রোগীর পরিবারের কাছে চলে যাওয়ায় খুশি অনেকেই।

পুরনিগম সূত্রে খবর, এই ধরনের সাহায্য ইতিমধ্যে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে দক্ষিণ কলকাতার ব্রহ্মপুরের বাসিন্দা ইন্দ্রনীল নন্দী ও তাঁর মায়ের কাছে। বছরদুয়েক আগে 'টক টু মেয়রে' কথা বলার জন্য যে হেল্পলাইন নম্বর দেওয়া হয়েছিল, সেই হেল্পলাইনে কিছুদিন আগে ফোন করেন ইন্দ্রনীল। সেখানে ফোন করে ইন্দ্রনীল জানান, তিনি ও তাঁর মা দুজনেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। খাবারের বন্দোবস্ত করার জন্য তাঁদের পরিবারে আর কেউ নেই। অর্থের অভাবে এই সময়ে প্রয়োজনীয় খাবার খেতেও পারছেন না। পুরনিগম যদি এই পরিস্থিতিতে তাঁদের পাশে এসে দাঁড়ায়, তাহলে খুব সুবিধা হয়। শেষপর্যন্ত পুরনিগমের ডাকে সাড়া দিয়ে ইন্দ্রনীল ও তাঁর মায়ের কাছে প্রয়োজনীয় খাবার পৌঁছে দিল পুর কর্তৃপক্ষ। উল্লেখ্য, এখন অবশ্য মেয়র হিসেবে নয়, কলকাতার পুর প্রশাসককে ১৮০০৫৭২১২১৩ ও ১৮০০৩৪৫১২১৩–তে ফোন করে অভিযোগ জানানো যায়।

বন্ধ করুন