বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‌কলকাতার মানুষকে মাস্ক পড়তে উৎসাহিত করতে নয়া উদ্যোগ পুরনিগমের
মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে পাশে বসিয়েই নয়া উদ্যোগ উদ্বোধন করেন মেয়র পারিষদ সন্দীপন সাহা

‌কলকাতার মানুষকে মাস্ক পড়তে উৎসাহিত করতে নয়া উদ্যোগ পুরনিগমের

  • মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিম জানান, ‘‌মাস্ক পড়তে আমরা উৎসাহিত করছি। 

সাধারণ মানুষকে মাস্ক পড়ায় উৎসাহিত করতে এবার বিশেষ উদ্যোগ নিল কলকাতা পুরনিগম। কলকাতা পুরনিগমের তরফে কলকাতা মাস্ক আপ চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করা হয়েছে। সেখানে সাধারণ মানুষ সপরিবারে মাস্ক পড়া ছবি আপলোড করতে পারবেন। দু'সপ্তাহ পরে ১০০টি সেরা পরিবারের সঙ্গে ‘‌গ্রিট অ্যান্ড মিট’‌ সেশন করবেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

 

এদিন মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে পাশে বসিয়েই নয়া উদ্যোগ উদ্বোধন করেন মেয়র পারিষদ সন্দীপন সাহা। নতুন এই উদ্যোগ উদ্বোধন করে মেয়র পারিষদ সন্দীপন সাহা জানান, ‘‌একটা অদ্ভুত পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে বিগত ২ বছর ধরে যাচ্ছি। বর্তমানে আমরা কোভিডের তৃতীয় ঢেউয়ের মধ্যে রয়েছি। এটা প্রতিষ্ঠিত যে মাস্ক ব্যবহার করলে কোভিড থেকে নিজেকে বাঁচানো যেতে পারে। সেই কথা মাথায় রেখে কলকাতা পুরনিগমের যে অফিশিয়াল ফেসবুক পেজ রয়েছে, সেই পেজে একটি ইভেন্ট পেজ তৈরি করা হয়েছে। সেখানে সপরিবারে কলকাতা নাগরিকরা তাঁদের মাস্ক পড়া ছবি আপলোড করতে পারবেন। দুসপ্তাহ পরে আমরা ১০০টি বেস্ট ছবি সিলেক্ট করব। সেই ছবিগুলি সিলেক্ট করে মাননীয় মহানাগরিকের সঙ্গে আমরা গ্রিট অ্যান্ড মিট সেশনের ব্যবস্থা করব।’‌ 

এই প্রসঙ্গে মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিম জানান, ‘‌মাস্ক পড়াকে আমরা উৎসাহিত করছি। পরিবারগতভাবে মাস্ক পড়াকে যাতে উৎসাহিত করা হয়, সেজন্য সন্দীপনরা এই উদ্যোগ নিয়েছে। পাশাপাশি সিসিটিভি ক্যামেরার সাহায্য নিয়ে যারা সব সময় মাস্ক পড়ে থাকে, এমন কয়েকজনকে আমরা পুরস্কৃত করার কথাও ভাবছি। সকলে মাস্ক পড়ে বেরোন। মাস্ক ছাড়া রাস্তায় কাউকে যেন দেখা না যায়। তাহলে আমরা কয়েকদিন পরেই করোনাকে পরাস্ত করতে পারব।’‌

 

এছাড়া কলকাতা পুরনিগমে সেকেন্ড পেমেন্ট গেটওয়ে চালু করা হয়েছে। এই প্রসঙ্গে মেয়র পারিষদ সন্দীপন সাহা জানান, ‘‌বিল ডেক্স নামে একটি পেমেন্ট গেট ওয়ে রয়েছে। যত সময় অতিবাহিত হচ্ছে, পেমেন্টের মোডগুলি আরও বাড়তে শুরু করেছে। সেই কারণে কলকাতা পুরনিগমের তরফে আরও একটি সেকেন্ড গেট ওয়ে চালু করছি এইচডিএফসি ব্যাঙ্কের মাধ্যমে। সেখানে ডেবিট কার্ড, নেট ব্যাঙ্কিং, পেমেন্ট ওয়ালেটের মাধ্যমে বিভিন্ন পেমেন্ট করা যাবে কলকাতা পুরনিগমকে। ২০১৬ তে ই মিউটেশন শুরু করেছিলাম। মিউটেশন সংক্রান্ত নথি আপলোড করার ব্যবস্থা করেছি। এছাড়া প্রপারটি ট্যাক্স ও ট্রেড লাইসেন্সের ক্ষেত্রে যাবতীয় তথ্য পেতে পারবেন হোয়াটস অ্যাপ চ্যাটবটের মাধ্যমে।’‌

বন্ধ করুন