বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > KMC: ১৮টি বিদ্যালয়কে অন্য স্কুলের সঙ্গে মিলিয়ে দেবে KMC, জারি হল বিজ্ঞপ্তি

KMC: ১৮টি বিদ্যালয়কে অন্য স্কুলের সঙ্গে মিলিয়ে দেবে KMC, জারি হল বিজ্ঞপ্তি

কলকাতা পুরসভার মূল ভবন। ফাইল ছবি

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘পুরসভার স্কুলগুলির গুণগতমান আরও উন্নত করার জন্য এবং শিক্ষার্থীদের সুবিধার জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। স্কুলগুলি স্থানান্তরের জন্য প্রয়োজনীয় কাজ যেমন স্কুলের জিনিসপত্র, নথিপত্র স্থানান্তর, শিক্ষক ও অশিক্ষক কর্মীদের স্থানান্তর ১৮ মার্চের মধ্যে সম্পন্ন হবে।

কলকাতা পুরসভার বহু স্কুল বেহাল অবস্থায় রয়েছে। অনেক স্কুলে পড়ুয়ার সংখ্যা খুবই কম, আবার পড়ুয়া থাকলেও বেশ কিছু স্কুল ভবন জরাজীর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ওই সমস্ত স্কুলগুলিকে অন্য স্কুলের সঙ্গে মিলিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কলকাতা পুরসভা। সেই মতো ২৮টি স্কুলকে বন্ধ করে নিকটবর্তী স্কুলগুলির সঙ্গে মিলিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কলকাতা পুরসভা। প্রথম ধাপে ১৮ টি স্কুলকে মিলিয়ে দেওয়া হবে এই মর্মে গতকাল পুরসভার তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘পুরসভার স্কুলগুলির গুণগতমান আরও উন্নত করার জন্য এবং শিক্ষার্থীদের সুবিধার জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে, স্কুলগুলি স্থানান্তরের জন্য প্রয়োজনীয় কাজ যেমন স্কুলের জিনিসপত্র, নথিপত্র, মিড-ডে মিলের সুবিধা স্থানান্তর, শিক্ষক ও অশিক্ষক কর্মীদের স্থানান্তর ১৮ মার্চের মধ্যে সম্পন্ন হবে। কিছু স্কুল রয়েছে যেখানে কম ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে সেই স্কুলগুলির সঙ্গে অন্য স্কুল মিলিয়ে দেওয়া হবে। প্রয়োজন অনুযায়ী শিক্ষকদের বণ্টন করা হবে। পুরসভার মেয়র পারিষদ (শিক্ষা) সন্দীপন সাহা বলেন, ‘পুরসভার মূল উদ্দেশ্য হল স্কুলগুলির আরও ভালো ব্যবহার। এই স্কুলগুলিকে মিলিয়ে দেওয়ার পর আমাদের হাতে পর্যাপ্ত শিক্ষক থাকবে যাদের আমরা যেখানে প্রয়োজন সেখানে ব্যবহার করতে পারব।’

পুরসভা চিহ্নিত করেছে যে কিছু স্কুল একই ভবনে দুই শিফটে পরিচালিত হয়। এই স্কুলগুলিতে কম ছাত্র আছে কিন্তু উভয় শিফটের জন্য সমান সংখ্যক শিক্ষক রয়েছে। এই ক্ষেত্রে দুটি শিফট মিলিয়ে দ্বৈত হবে। শিক্ষা বিভাগ স্কুলগুলির জন্য একটি নতুন সময়সূচিও প্রস্তুত করবে। বিশেষত যেখানে দুটি শিফট চলছে সেই সমস্ত স্কুলে অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলার পরে নতুন সময়সূচি ঠিক করা হবে।

তাছাড়া তালিকায় এমন কিছু স্কুল রয়েছে যেগুলি ভাড়া করা সম্পত্তিতে পরিচালিত হয়। এসব অনেক বিল্ডিং নিয়ে মামলা চলছে রয়েছে বা সেগুলির অবস্থা ভালো নয়। এই বিষয়গুলির ভিত্তিতে পুর আধিকারিকরা ২৪২টি পুরসভা পরিচালিত স্কুলের মধ্যে ২৮টি স্কুল চিহ্নিত করেছেন, যেখানে কলকাতার প্রায় ১৬,০০০ ছাত্র এই স্কুলগুলিতে পড়াশোনা করে। সাধারণত স্কুল পরিচালনার জন্য পুরসভার নির্দিষ্ট খরচ রয়েছে। কিন্তু স্কুল থাকা সত্ত্বেও পড়ুয়াদের সংখ্যা কম থাকার ফলে কলকাতা পুরসভার ব্যয়ও কমছে না। এর পরিপ্রেক্ষিতে তুলনামূলক ভালো স্কুলগুলির সঙ্গে ওই স্কুলগুলিকে মিলিয়ে দিলে সেখানে অযৌক্তিক ব্যয় কিছুটা কমবে বলে মনে করছেন পুরসভার আধিকারিকরা।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন