পোস্তা উড়ালপুলের ভেঙে পড়া অংশ
পোস্তা উড়ালপুলের ভেঙে পড়া অংশ

পুরভোটের আগে পোস্তা উড়ালপুল নিয়ে ফের টেন্ডার ডাকল KMDA

  • যদিও KMDA-র এই পদক্ষেপের পিছনে রাজনীতি দেখতে পাচ্ছেন বিরোধীরা। তাদের কথায়, গত ৪ বছর ধরে শহরের বুকে মৃতদেহ হয়ে একটা উড়ালপুল দাঁড়িয়ে রয়েছে।

পোস্তা উড়ালপুলের ভবিষ্যৎ ঠিক করতে ফের টেন্ডার ডাকল কলকাতা মেট্রোপলিটন ডেভেলপমেন্ট অথরিটি। ২০১৬ সালের ৩১ মার্চ গণেশ টকিজের সামনে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে নির্মিয়মান উড়ালপুলের অংশ। ঘটনায় ৫০ জনের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছিল। তার পর থেকে বারবার এই উড়ালপুলের ভবিষ্যৎ ঠিক করতে বসলেও সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারেনি পুরসভা বা সরকার।

গত ৪ বছর ধরে অসমাপ্ত অবস্থাতেই পড়ে রয়েছে পোস্তা উড়ালপুল। উড়ালপুলটি ভেঙে ফেলা হবে বলে জানিয়েছিল পুরসভা। এমনকী খড়গপুর আইআইটি, রাইটসের মতো সংস্থাকে সমীক্ষাও করায় সরকার। কিন্তু উড়ালপুলের ভবিষ্যৎ নিয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে তাই ফের সমীক্ষার টেন্ডার ডাকা হয়েছে।

যদিও KMDA-র এই পদক্ষেপের পিছনে রাজনীতি দেখতে পাচ্ছেন বিরোধীরা। তাদের কথায়, গত ৪ বছর ধরে শহরের বুকে মৃতদেহ হয়ে একটা উড়ালপুল দাঁড়িয়ে রয়েছে। উড়ালপুলটির ভবিষ্যৎ ঠিক করতে পারল না সরকার। যা সিদ্ধান্ত গ্রহণে সরকারের অপদার্থতার পরিচয়। পুরভোটে বিষয়টি নিয়ে বিরোধীরা তুলে ধরতে চলেছে বিরোধীরা। তা আঁচ করে ফের টেন্ডার ডেকে নিজেদের তৎপরতা বোঝাতে চাইছে সরকার।

বিশেষজ্ঞদের মতে, অসমাপ্ত সেতু রক্ষণাবেক্ষণহীন অবস্থায় পড়ে থাকলে যে কোনও সময় বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। ফলে দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হবে সরকারকে।


বন্ধ করুন