বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বউবাজারে আটকে থাকা ‘চণ্ডী’-কে মাটির ওপরে তুলতে বিশাল গর্ত খুড়ছে KMRCL

বউবাজারে আটকে থাকা ‘চণ্ডী’-কে মাটির ওপরে তুলতে বিশাল গর্ত খুড়ছে KMRCL

প্রতীকি ছবি

বিশেষজ্ঞদের মতে, চণ্ডীকে উদ্ধার করা গেলেও সেটিকে ফের কাজে লাগাতে পারার সম্ভাবনা খুবই কম।

বউবাজারে মাটির নীচে আটকে থাকা টানেল বোরিং মেশিনটি তোলার তোড়জোড় শুরু করল ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো কর্তৃপক্ষ। সেজন্য রাস্তার ওপর একটি বিশাল গহ্বর খুড়তে শুরু করেছে তারা। সঙ্গে অস্ট্রিয়া থেকে আনা হয়েছে একটি যন্ত্র। যার মাধ্যমে সুড়ঙ্গ থেকে বার করা হবে আটকে থাকা টানেল বোরিং মেশিনটিকে। 

গত বছর সেপ্টেম্বরে ইস্ট – ওয়েস্ট মেট্রোর সুড়ঙ্গ খোড়ার সময় বউবাজার এলাকায় ধসতে থাকে মাটি। তার জেরে ধসে যায় অন্তত ২ ডজন বাড়ি। রাতারাতি গৃহহীন হন কয়েক শ মানুষ। ওদিকে মাটি ধসে সুড়ঙ্গেই আটকে পড়ে টানেল বোরিং মেশিন ‘চণ্ডী’। প্রায় ১ বছর পর সেটিকে তোলার উদ্যোগ শুরু হল। 

ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রোর তরফে জানানো হয়েছে, চণ্ডীকে তুলে আনতে বউবাজারে ঘটনাস্থলে ৩৯ মিটার দীর্ঘ, ১০ মিটার চওড়া ও ৩৮ মিটার গভীর একটি গর্ত খোড়া হবে। বিশাল এই গর্ত ঘেরা হবে কংক্রিট দিয়ে। যাতে ফের মাটিতে ধস না শুরু হয়। এর পর তুলে আনা হবে TBM-টিকে। 

বিশেষজ্ঞদের মতে, চণ্ডীকে উদ্ধার করা গেলেও সেটিকে ফের কাজে লাগাতে পারার সম্ভাবনা খুবই কম। ফলে ওজন দরে বিক্রি করা ছাড়া উপায় থাকবে না। কিন্তু সুড়ঙ্গ খোড়ার কাজ শেষ করতে TBM-টিকে বার করতেই হবে। 

ওদিকে সমান্তরাল একটি সুড়ঙ্গ খুড়তে খুড়তে বউবাজার থেকে শিয়ালদার দিকে এগোচ্ছে আরেকটি টানেল বোরিং মেশিন ‘ঊর্বি’। সেটি শিয়ালদহ পৌঁছলে তাকে বউবাজারের দিকে ঘুরিয়ে দেওয়া হবে। অন্য সুড়ঙ্গটির অবশিষ্ট অংশ খুড়বে সেটি। তার পর একই গহ্বর দিয়ে মাটির ওপরে তুলে ফেলা হবে সেই যন্ত্রটিকেও।

গোটা কাজ শেষ করতে এখনো ৫ – ৬ মাস সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন KMRCL-এর আধিকারিকরা।

 

বন্ধ করুন