বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > KMC: দৃশ্যদূষণ রুখতে নয়া বিজ্ঞাপন নীতি নিয়ে আসছে KMC, বহু জায়গায় নিষিদ্ধ বিজ্ঞাপন

KMC: দৃশ্যদূষণ রুখতে নয়া বিজ্ঞাপন নীতি নিয়ে আসছে KMC, বহু জায়গায় নিষিদ্ধ বিজ্ঞাপন

কলকাতা পুরসভার মূল ভবন। ফাইল ছবি

নতুন বিজ্ঞাপন নীতিতে দৃশ্য দূষণ রোধে হেরিটেজ ভবন থেকে বিজ্ঞাপনের হোর্ডিং সরানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি কলকাতার জলাভূমিকেও দৃশ্য দূষণ মুক্ত করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। ইউনিপোল হোর্ডিং চালু করতে যাচ্ছে কলকাতা পুরসভা।

শহরের যেখানে সেখানে বিজ্ঞাপনের ফলে বাড়ছে দৃশ্য দূষণ এই দৃশ্য দূষণ রোধে আরও তৎপর হচ্ছে কলকাতা পুরসভা। এরজন্য কলকাতা পুরসভা নিয়ে আসছে নতুন বিজ্ঞাপন নীতি। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে পুজোর আগেই এই বিজ্ঞাপন নীতি চালু করা হবে। এর ফলে শহরে দৃশ্য দূষণ অনেকটা নিয়ন্ত্রণ করা যাবে বলে মনে করছে কলকাতা পুরসভার অধিকারিকরা।

নতুন বিজ্ঞাপন নীতিতে দৃশ্য দূষণ রোধে হেরিটেজ ভবন থেকে বিজ্ঞাপনের হোর্ডিং সরানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি কলকাতার জলাভূমিকেও দৃশ্য দূষণ মুক্ত করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। ইউনিপোল হোর্ডিং চালু করতে যাচ্ছে কলকাতা পুরসভা। এই ইইউনিপোল হোর্ডিং অনুযায়ী নির্দিষ্ট দূরত্বে একটি করে পোল থাকবে এবং সেই পোলগুলির মাপ সমান হবে। মেয়র পারিষদ দেবাশিস কুমার (বিজ্ঞাপন) জানিয়েছেন, গতকাল বিজ্ঞাপন নীতি নিয়ে জরুরি বৈঠক করেছেন মেয়র ফিহাদ হাকিম। সেখানেই এই সমস্ত বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। বৈঠকে ছিলেন দেবাশিস কুমার এবং পুর কমিশনার বিনোদ কুমার।

৫২ পাতার বিজ্ঞাপন নীতির খসড়ায় উল্লেখ করা হয়েছে কোনটি হোর্ডিং জোন এবং কোনটি নন হোর্ডিং জোন। ইউনিপোল হোর্ডিংয়ের পাশাপাশি ডিজিটাল বিজ্ঞাপনের উপর জোর দিচ্ছে কলকাতা পুরসভা। তাছাড়া নির্দিষ্ট এলাকার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বিজ্ঞাপন দিতে হবে বল পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। হেরিটেজ ভবন ছাড়াও ধর্মতলা, বিবাদী বাগ প্রভৃতি চত্বরে বিজ্ঞাপন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। যদিও খসড়া নিয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। মেয়র পারিষদ জানিয়েছেন, এনিয়ে আলোচনা চলছে। সে ক্ষেত্রে আরও পরিবর্তন বা সংযোজন হতে পারে। এর জন্য এজেন্সি থেকে শুরু করে বিশেষজ্ঞ সকলের কাছে প্রস্তাব নেওয়া হচ্ছে। সবমিলিয়ে পুজোর আগে এই বিজ্ঞাপন নিতে চালু করতে চাইছে কলকাতা পুরসভা।

বন্ধ করুন