বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Monkey pox: মাঙ্কি পক্স নিয়ে জনগণকে সতর্ক করতে প্রতিটি ওয়ার্ডে প্রচার চালাবে KMC
মাঙ্কি পক্স নিয়ে প্রচার চালাবে কলকাতা পুরসভা। প্রতীকী ছবি (AP)

Monkey pox: মাঙ্কি পক্স নিয়ে জনগণকে সতর্ক করতে প্রতিটি ওয়ার্ডে প্রচার চালাবে KMC

  • ডেপুটি মেয়র জানিয়েছেন, এই নয়া ভাইরাস নিয়ে ১৪৪ টি ওয়ার্ডে মাইকিং করে প্রচার চালানো হবে। এর পাশাপাশি হোর্ডিং দিয়েও প্রচার করা হবে। তিনি জানান, আপাতত কলকাতায় মাঙ্কি পক্সে আক্রান্তের কোনও খবর না পাওয়া যায়নি। 

করোনা মহামারীর মধ্যেই নতুন আতঙ্ক হয়ে দাঁড়িয়েছে মাঙ্কি পক্স। সম্প্রতি আরব আমিরশাহ ফেরত কেরলের বাসিন্দার মৃত্যু হয়েছে মাঙ্কি পক্সে। এছাড়াও, রাজস্থানের একজনের শরীরে মাঙ্কি পক্সের অস্তিত্ব মিলেছে। অর্থাৎ সবমিলিয়ে ভারতে হানা দিয়েছে এই ভাইরাস। ফলে স্বাভাবিকভাবেই এই ভাইরাস নিয়ে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। তবে পশ্চিমবঙ্গে এখনও পর্যন্ত এই ভাইরাসের অস্তিত্ব না মিললেও তা নিয়ে আগেভাগেই সতর্ক কলকাতা পুরসভা। এই ভাইরাসের মোকাবেলা করতে তৎপর কলকাতা পুরসভা। তাই মানুষকে সচেতন করার পাশাপাশি বাড়ি বাড়ি গিয়ে পুরসভার স্বাস্থ্যকর্মীরা এই ভাইরাসে কেউ আক্রান্ত হয়েছেন কিনা তার খোঁজ চালাবেন বলে জানা গিয়েছে।

গতকাল এ নিয়ে বৈঠক করেছে কলকাতা পুরসভা। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কলকাতা পুরসভার ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ, রাজ্যের অতিরিক্ত স্বাস্থ্য অধিকর্তা পল্লব ভট্টাচার্য এবং পুরসভার স্বাস্থ্য দফতরের অন্যান্য আধিকারিকরা। ডেপুটি মেয়র জানিয়েছেন, এই নয়া ভাইরাস নিয়ে ১৪৪টি ওয়ার্ডে মাইকিং করে প্রচার চালানো হবে। এর পাশাপাশি হোর্ডিং দিয়েও প্রচার করা হবে। তিনি জানান, আপাতত কলকাতায় মাঙ্কি পক্সে আক্রান্তের কোনও খবর না পাওয়া যায়নি। তবে এই ভাইরাসের যে সমস্ত উপসর্গগুলি থাকে সেগুলি কারও থাকলে তাদের পুরসভার স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মাঙ্কি পক্স নিয়ে আগেই সতর্ক করেছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। সেক্ষেত্রে চিকিৎসকদের প্রশিক্ষণ করার জন্য কর্মশালা করা হবে বলে রাজ্যে স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। আগামীকাল বুধবার সমস্ত পুরসভাকে স্বাস্থ্যভবনে ডেকে পাঠানো হয়েছে। প্রসঙ্গত, করোনার সময় চিকিৎসকদের সেভাবে প্রশিক্ষণ ছিল না। ফলে করোনার মোকাবেলা করতে গিয়ে প্রথম দিকে সমস্যা হয়েছিল। তাই এর পুনরাবৃত্তি যাতে না হয় সে কথা মাথায় রেখে আগেভাগে চিকিৎসকদের প্রশিক্ষণ করতে চাইছে রাজ্য।

বন্ধ করুন