বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > পুরসভা নির্বাচনের সিসিটিভি ফুটেজ সংরক্ষণ করতে হবে, নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের
কলকাতা হাইকোর্ট (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

পুরসভা নির্বাচনের সিসিটিভি ফুটেজ সংরক্ষণ করতে হবে, নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের

  • রাজ্যের ১০৮টি পুরসভার মধ্যে একটি পুরসভাও পায়নি বিজেপি। এমনকী শীর্ষনেতারা নিজেদের ওয়ার্ড বাঁচাতে পারেননি।

রাজ্যের ১০৮টি পুরসভা নির্বাচনে বিজেপি গোহারা হয়েছে। এই পরাজয়ের নেপথ্যে আছে ছাপ্পা, বুথ দখল, রিগিং বলে অভিযোগ বিজেপির। সেই মর্মে মামলা করেছিল তারা কলকাতা হাইকোর্টে। সেই মামলার শুনানি আজ, সোমবার হয়। সেখানেই ভোটগ্রহণের সময়ের সমস্ত সিসিটিভি ফুটেজ সংরক্ষণ করার নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। এমনকী এই মামলায় জাতীয় নির্বাচন কমিশনকে যুক্ত করা হয়েছে।

রাজ্যের ১০৮টি পুরসভার মধ্যে একটি পুরসভাও পায়নি বিজেপি। এমনকী শীর্ষনেতারা নিজেদের ওয়ার্ড বাঁচাতে পারেননি। দার্জিলিং এবং তাহেরপুর পুরসভা দুটি পেয়েছে যথাক্রমে হামরো পার্টি এবং সিপিআইএম। সেখানে বিজেপি শূন্য হাতেই ফিরেছে। এই ফলাফল তারা মেনে নিতে নারাজ। তাই পুরসভা নির্বাচন নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেছে বিজেপি।

ঠিক কী অভিযোগ করা হয়েছে মামলায়?‌ কলকাতা হাইকোর্ট সূত্রে খবর, কলকাতা–সহ চার পুরনিগম এবং ১০৮টি পুরসভার নির্বাচনে ছাপ্পা, বুথ দখল, রিগিং হয়েছে বলে হলফনামায় অভিযোগ করে কলকাতা হাইকোর্টে পৃথক পৃথক মামলা করে বিজেপি। যদিও প্রধান বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার ডিভিশন বেঞ্চ আজ জানিয়ে দেয়, এসব অভিযোগ একত্রিত করে এই মামলার শুনানি হবে। আর নির্বাচন প্রক্রিয়ার সিসিটিভি ফুটেজ সংরক্ষণের নির্দেশ দেওয়া হয়।

বিজেপি এই মামলায় দুটি দাবি করেছিল। এক, মামলাটিতে সিবিআইকে যুক্ত করতে হবে। দুই, জাতীয় নির্বাচন কমিশনকে নিয়োগ করতে হবে। সেক্ষেত্রে কলকাতা হাইকোর্ট আজ, সোমবার জাতীয় নির্বাচন কমিশনকে এই মামলায় অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। ফলে সিসিটিভি ফুটেজ দেখা থেকে শুরু করে নির্বাচন প্রক্রিয়া নিয়ে সরাসরি হস্তক্ষেপ করতে পারবে নির্বাচন কমিশন। আগামী ১১ মার্চ পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

বন্ধ করুন