বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Calcutta High Court: গল্ফগ্রিন থানায় পিটিয়ে খুনের অভিযোগ! সিসিটিভি ফুটেজ জমার নির্দেশ হাইকোর্টের
কলকাতা হাইকোর্ট। ছবি সৌজন্য : পিটিআই (PTI)

Calcutta High Court: গল্ফগ্রিন থানায় পিটিয়ে খুনের অভিযোগ! সিসিটিভি ফুটেজ জমার নির্দেশ হাইকোর্টের

  • এই ঘটনা নিয়েই পুলিশের অতি সক্রিয়তার অভিযোগ তোলেন দীপঙ্করের পরিবার। সেই অভিযোগ আদালতে গড়াতেই বড় নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। পরিবারের অভিযোগ ছিল, লকআপে মারধর করা হয়েছিল বলেই অসুস্থ হয়ে মৃত্যু হয় দীপঙ্করের। তাঁর ভাই হাইকোর্টে মামলা করে জানান, গল্ফগ্রিন থানার সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ্যে আনার জন্য।

দক্ষিণ কলকাতার গল্ফগ্রিন থানার লকআপে একজনকে পিটিয়ে মারা হয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছিল। ওই ব্যক্তি আবার বিজেপি কর্মী বলেও দাবি করা হয়েছিল। আর এই পিটিয়ে মারার ঘটনায় পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয়েছিল। মৃত বিজেপি কর্মী দীপঙ্কর সাহার পরিবার দাবি করেছিল, সেদিনের থানার সিসিটিভি ফুটেজ জমা দেওয়া হোক। এই দাবি নিয়ে মামলা করা হয় কলকাতা হাইকোর্টে। এবার গল্ফগ্রিন থানার সিসিটিভি ফুটেজ এবং ময়নাতদন্তের ভিডিয়ো রেকর্ডিং জমা দেওয়ার নির্দেশ দিলেন বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা।

ঠিক কী নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি?‌ আজ, বৃহস্পতিবার গল্ফগ্রিন কাণ্ডের মামলার শুনানি ছিল রাজশেখর মান্থার বেঞ্চে। তিনি শুনানি শেষে সরাসরি নির্দেশ দেন, ঘটনার দিনের সিসিটিভি ফুটেজ জমা দিতে হবে গল্ফগ্রিন থানাকে। আবার দীপঙ্কর সাহার ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এবং ভিডিয়ো রেকর্ডিংও জমা করতে হবে। এইসব জিনিস জমা দিতে হবে আগামী ২১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে।

ঠিক কী ঘটেছিল গল্ফগ্রিন থানায়?‌ সূত্রের খবর, গত ৫ অগস্ট থানার লকআপে এক যুবককে পিটিয়ে মারার অভিযোগ ওঠে। দীপঙ্কর সাহা নামে ওই যুবক এলাকায় বিজেপি কর্মী বলে পরিচিত। তাঁকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ। তার পর রাত ৯টা নাগাদ আহত অবস্থায় রাস্তার পাশে তাঁকে ফেলে দিয়ে যায় বাড়ির সামনে। কিন্তু তাঁকে এম আর বাঙ্গুর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ এই ঘটনা নিয়েই পুলিশের অতি সক্রিয়তার অভিযোগ তোলেন দীপঙ্করের পরিবার। সেই অভিযোগ আদালতে গড়াতেই বড় নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। পরিবারের অভিযোগ ছিল, লকআপে মারধর করা হয়েছিল বলেই অসুস্থ হয়ে মৃত্যু হয় দীপঙ্করের। তাঁর ভাই কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করে জানান, গল্ফগ্রিন থানার সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ্যে আনার জন্য। আজ সেই আর্জিই মেনে নিল কলকাতা হাইকোর্ট।

বন্ধ করুন