বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌পার্থবাবু একজন বিজ্ঞ ব্যক্তি’‌, এসএসসি মামলার শুনানিতে মন্তব্য বিচারপতির
বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। 

‘‌পার্থবাবু একজন বিজ্ঞ ব্যক্তি’‌, এসএসসি মামলার শুনানিতে মন্তব্য বিচারপতির

  • এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে সিবিআইয়ের সামনে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। এই জাঁদরেল বিচারপতি এও বলেছিলেন, নিজাম প্যালেসে সিবিআই দফতরে হাজিরা দেওয়ার পরিবর্তে এসএসকেএম হাসপাতালের উডবার্নে ওয়ার্ডে ভর্তি হওয়া যাবে না।

এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে সিবিআইয়ের সামনে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। কলকাতা হাইকোর্টের এই জাঁদরেল বিচারপতি এও বলেছিলেন, নিজাম প্যালেসে সিবিআই দফতরে হাজিরা দেওয়ার পরিবর্তে এসএসকেএম হাসপাতালের উডবার্নে ওয়ার্ডে ভর্তি হওয়া যাবে না। এমনকী সিবিআই চাইলে পার্থবাবুকে গ্রেফতার করতে পারে। আর আজ, মঙ্গলবার তাঁকেই ভরা এজলাসে বলতে শোনা গেল, পার্থবাবু বিজ্ঞ ব্যক্তি।

ঠিক কী বলেছেন বিচারপতি?‌ আজ, মঙ্গলবার এসএসসি সংক্রান্ত মামলার শুনানির সময় বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, ‘‌আমি হয়তো পার্থ চট্রোপাধ্যায়কে নিয়ে কিছু মন্তব্য করেছি। কিন্তু পার্থ চট্রোপাধ্যায়কে নিয়ে আমার ব্যক্তিগত কোনও রাগ বা ক্ষোভের ব্যাপার নেই। তিনি একজন বিজ্ঞ ব্যক্তি।’‌ একইসঙ্গে সিবিআইয়ের উপর হতাশা প্রকাশ করেছেন বিচারপতি।

ঠিক কী বলেছেন সিবিআই নিয়ে?‌ এদিন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় হতাশা প্রকাশ করে বলেন, ‘‌ডজন খানেক সিবিআই তদন্ত শেষে নোবেল পুরষ্কার হবে! মনে হচ্ছে সিবিআইয়ের থেকে সিট ভাল। টানেলের শেষে কোনও আলো দেখতে পাচ্ছি না। আমি ক্লান্ত। নভেম্বর মাসে প্রথম সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলাম। তারপর কী হয়েছে? কিছুই নয়। ক্লান্ত আমি।’‌

ঠিক কী হয়েছে কলকাতা হাইকোর্টে?‌ আদালত সূত্রে খবর, পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের হয়ে আদালতে সওয়াল করেন আইনজীবী–সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। কল্যাণবাবু শুনানির শেষে বলেন, ‘‌আমি পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জন্য সবসময় আছি। অন্যের কথা বলতে পারব না। সুমদ্রের সামনে দাঁড়িয়ে জল খাচ্ছি। আমি ২০১১ সালের আগে পর্যন্ত আমি ছিলাম। এখন আমি বহিরাগত।’‌ হঠাৎ তিনি কেন এমন বললেন?‌ তার ব্যাখ্যা মেলেনি।

বন্ধ করুন