বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বিজেপি নেতা মণীশ শুক্ল হত্যা মামলায় কেস ডায়েরি তলব করল কলকাতা হাইকোর্ট
মণীশ শুক্ল। ফাইল ছবি
মণীশ শুক্ল। ফাইল ছবি

বিজেপি নেতা মণীশ শুক্ল হত্যা মামলায় কেস ডায়েরি তলব করল কলকাতা হাইকোর্ট

  • মণীশ শুক্লর পরিবারের পক্ষ থেকে এই মামলায় যুক্ত হওয়ার আবেদন করা হয়েছিল। সেই আবেদনও এদিন গৃহীত হয়েছে।

‌মণীশ শুক্ল হত্যা মামলায় কেস ডায়েরি তলব করল কলকাতা হাইকোর্ট। পরবর্তী শুনানির আগে সিআইডি–কে এই মামলায় তদন্ত সংক্রান্ত রিপোর্টও পেশের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

বুধবার কলকাতা হাইকোর্টের তরফে দেওয়া নির্দেশে বলা হয়েছে, বিজেপি নেতা মণীশ শুক্ল খুনের তদন্ত মামলায় পরবর্তী শুনানির আগে সিআইডি–কে একটি রিপোর্ট পেশ করতে হবে যেখানে এই মামলার তদন্তে অগ্রগতির ব্যাপারে বিস্তারিত জানাতে হবে। পাশাপাশি সিআইডি কী কী পদক্ষেপ এখনও গ্রহণ করা হয়েছে সেটাও বিস্তারিতভাবে লিখতে হবে ওই রিপোর্টে।

এর পাশাপাশি এই মামলার যে কেস ডায়েরি সেটাও আদালতে পেশ করতে হবে বলে এদিন নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। মণীশ শুক্লর পরিবারের পক্ষ থেকে এই মামলায় যুক্ত হওয়ার আবেদন করা হয়েছিল। সেই আবেদনও এদিন গৃহীত হয়েছে। উল্লেখ্য, মণীশ শুক্ল হত্যাকাণ্ডে তদন্তে চেয়ে এই জনস্বার্থ মামলাটি করেছিলেন আইনজীবী তথা বিজেপি নেত্রী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল।

এদিকে, ইতিমধ্যে টিটাগড়ের বিজেপি নেতা মণীশ শুক্ল খুনের ঘটনায় আদালতে চার্জশিট পেশ করেছে সিআইডি। চার্জশিটে ১০ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া ১২ জনকে সন্দেহভাজন বলে চিহ্নিত করেছেন গোয়েন্দারা। তার মধ্যে রয়েছেন তৃণমূল নেতা উত্তম দাস ও প্রশান্ত চৌধুরী। 

এছাড়া চার্জশিটে সুবোধ রায়, মহম্মদ খুররম, নাসির আলি, সুজিত রায়, রোশন কুমার, পবন রায়, মহম্মদ গুলাব, সোনু রায়, রাজা রায় ও পবন যাদবের নাম উল্লেখ করেছে সিআইডি। গত ৪ অক্টোবর টিটাগড় থানা থেকে ঢিল ছোড়া দূরত্বে আততায়ীদের গুলিতে খুন হন বিজেপি নেতা মণীশ শুক্ল। ঘটনার পরদিনই তদন্তভার সিআইডিকে দেয় নবান্ন।

বন্ধ করুন