বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > WB Primary Teacher Recruitment 2021: রাতারাতি প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ হলেই পদক্ষেপ—‌ রাজ্যকে কড়া বার্তা হাইকোর্টের
কলকাতা হাইকোর্ট। ফাইল ছবি
কলকাতা হাইকোর্ট। ফাইল ছবি

WB Primary Teacher Recruitment 2021: রাতারাতি প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ হলেই পদক্ষেপ—‌ রাজ্যকে কড়া বার্তা হাইকোর্টের

  • এর পর টেট (‌TET) সংক্রান্ত সব মামলার শুনানি হবে আগামী সোমবার, ১৮ জানুয়ারি। সেদিন ৩ থেকে ৪টে ক্যাটাগরিতে টেট মামলা শুনবে আদালত।

সাড়ে ১৬ হাজার শূন্যপদে প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ–পর্ব চলছে পশ্চিমবঙ্গে। রবিবার এর ইন্টারভিউয়ের শেষ দিন। এমন সময় রাজ্য সরকারকে কড়া বার্তা দিল কলকাতা হাইকোর্ট। শুক্রবার হাইকোর্টে প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত মামলার শুনানি ছিল। আদালতের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে পরিষ্কার জানানো হয়েছে, প্রাথমিকে রাতারাতি নিয়োগ হলে হাইকোর্ট পদক্ষেপ করবে।

এদিন শুনানি চলাকালীন মামলাকারীদের তরফে আইনজীবী আশঙ্কা প্রকাশ করে জানান, ‘‌মাত্র ৬ ঘণ্টায় মালদা, বাঁকুড়ায় ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করে দেওয়া হয়েছে। রবিবার, ১৭ জানুয়ারি ইন্টারভিউয়ের শেষ দিন। সেদিন রাতেই নিয়োগ তালিকা প্রস্তুত করে দেওয়া হতে পারে।’‌ আর আইনজীবীর এই কথা শুনেই বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজ তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য করেন। তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন, ‘‌রাতারাতি যদি নিয়োগ তালিকা প্রস্তুত হয় তবে হাইকোর্টও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করবে।’‌

জানা গিয়েছে, এর পর টেট (‌TET) সংক্রান্ত সব মামলার শুনানি হবে আগামী সোমবার, ১৮ জানুয়ারি। সেদিন ৩ থেকে ৪টে ক্যাটাগরিতে টেট মামলা শুনবে আদালত। উল্লেখ্য, গত ১১ নভেম্বর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেন, সাড়ে ১৬ হাজার শূন্যপদে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে নিয়োগ করবে প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ। ১০ থেকে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে ইন্টারভিউ। জানুয়ারি–ফেব্রুয়ারির মধ্যে প্রক্রিয়া করে যত শীঘ্র সম্ভব নিয়োগ প্যানেল তৈরি করা হবে।

এর পর শিক্ষক নিয়োগের জন্য ২৩ ডিসেম্বর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে প্রাথমিক বোর্ড। ঠিক পরের দিনই প্রাথমিকে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তিকে চ্যালেঞ্জ করে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেন পায়েল বাগ নামে জনৈকা টেট উত্তীর্ণ। তিনি দাবি করেন, ‘২০১৪ সালের টেটে ৬টি প্রশ্ন ভুল ছিল। সেই প্রশ্নগুলি যারা উত্তর করার চেষ্টা করেছে তাদের পুরো নম্বর দিতে হবে। তার ফলে তারা যদি মেধাতালিকায় চলে আসে তাহলে চাকরি দিতে হবে তাদের। এখনো পর্যন্ত এমন ৭০০–র বেশি পরীক্ষার্থী নিয়োগ পাননি।’‌

বন্ধ করুন