বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > করোনা দেহ সৎকারে অভিনব উদ্যোগ, সোশ্যাল মিডিয়ায় নম্বর কলকাতা পুরসভার
কলকাতা পুরসভা। ফাইল ছবি
কলকাতা পুরসভা। ফাইল ছবি

করোনা দেহ সৎকারে অভিনব উদ্যোগ, সোশ্যাল মিডিয়ায় নম্বর কলকাতা পুরসভার

  • এই পরিস্থিতিতে তৎপর হল কলকাতা পুরসভা। এবার করোনা–আক্রান্তের মৃত্যু হলে পূর্ণ মর্যাদায় সেই দেহ সৎকার করা হবে বলে জানানো হয়েছে পুরসভার পক্ষ থেকে।

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেসামাল গোটা দেশ। তার রেশ পড়েছে বাংলায়ও। এমনকী এই সংক্রমণে আক্রান্ত হয়ে মারাও যাচ্ছেন বহু মানুষ। আর তাদের দেহ পড়ে থাকছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বলে অভিযোগ উঠেছে। খাস কলকাতায় দেখা গিয়েছে সেই ছবি। এই পরিস্থিতিতে তৎপর হল কলকাতা পুরসভা। এবার করোনা–আক্রান্তের মৃত্যু হলে পূর্ণ মর্যাদায় সেই দেহ সৎকার করা হবে বলে জানানো হয়েছে পুরসভার পক্ষ থেকে। তার জন্য দেওয়া হয়েছে কিছু নম্বরও।

জানা গিয়েছে, এখন ধাপার মাঠের পিছনে পোড়ানো হয় করোনা আক্রান্তের দেহ। সেই দেহ সৎকার করতে গিয়ে নানা ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হতে হচ্ছে পরিবারকে। অভিযোগ, সৎকারের জন্য কারও কাছে ১০ হাজার, কারও কাছে ১৫ হাজার টাকা চাওয়া হচ্ছে। এই খবর পাওয়ার পর নড়েচড়ে বসেছে কলকাতা পুরসভা। তাই সৎকারের ব্যবস্থার জন্য বোরো ভিত্তিতে তিনটে ভাগে ভাগ করে দায়িত্ব দে্ওয়া হয়েছে আধিকারিকদের। প্রচারের জন্য সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের ফোন নম্বরও দেওয়া হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া এবং ওয়েবসাইটে।

কলকাতা পুরসভা সূত্রে খবর, ১–৫, ৬–১০ এবং ১১–১৫ এই তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে। প্রথমে রয়েছেন ডেপুটি সিএমএইচও ডা. বাসুদেব মুখোপাধ্যায়, দ্বিতীয়ে ৬ নম্বর বোরোর এক্সিকিউটিভ হেল্থ অফিসার ডা. উৎপল কাঞ্জি এবং তৃতীয়ে ১১ নম্বরের এক্সিকিউটিভ হেল্থ অফিসার ডা. সুব্রত মৌলিককে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এমনকী সোশ্যাল মিডিয়ায় এদের ব্যক্তিগত নম্বরও দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিক জেলার যোগাযোগ নম্বরও দেওয়া হয়েছে। সব কটি পুরসভা এলাকায় করোনা আক্রান্তের দেহ সৎকারে কার সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে, তাঁর নম্বর ও নাম আপলোড করা হয়েছে। পুরসভার সঙ্গে যোগাযোগ করে মিলবে অ্যাম্বুলেন্সের নম্বরও। টেলিমেডিসিনের জন্যও নম্বর দেওয়া হয়েছে এখানে।

বন্ধ করুন