বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > করোনায় মৃতের দেহবদলের অভিযোগ বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে
মঙ্গলবার হাসপাতাল থেকে শংকর গুছাইতের দেহ নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। 
মঙ্গলবার হাসপাতাল থেকে শংকর গুছাইতের দেহ নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। 

করোনায় মৃতের দেহবদলের অভিযোগ বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে

  • হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, ওই দেহ শংকরবাবুই। দীর্ঘদিন করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি থাকায় তাঁর শারীরিক গঠনের পরিবর্তন হয়েছে।

করোনায় মৃতের দেহ বদলের অভিযোগ উঠল কলকাতা লাগোয়া বাগুইআটির একটি বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে। নিহত শংকর গুছাইত কলকাতার বেলেঘাটা এলাকার বাসিন্দা। করোনা আক্রান্ত হয়ে বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। সোমবার রাতে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে জানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সকালে দেহ হস্তান্তরের পর পরিবারের লোকেরা দাবি করে, দেহ শংকরবাবুর নয়। 

পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, গত ১২ মে করোনা আক্রান্ত অবস্থায় বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন গুছাইতবাবু। সোমবার রাতে হাসপাতালের তরফে ফোন করে তাঁদের জানানো হয়, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। সোমবার সকালে দেহ নিতে হাসপাতালে যান পরিবারের সদস্যরা। সেখানে শবদেহবাহী ব্যাগে ভরা একটি দেহ তাঁদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ব্যাগের মুখ খুলে পরিবারের সদস্যরা জানান এই দেহ শংকরবাবুর নয়। 

এর পর হাসপাতালের মর্গে গিয়ে বাকি দেহগুলিও দেখানো হয় পরিবারের সদস্যদের। কিন্তু কোনও দেহই শংরকরবাবুর নয় বলে দাবি জানানো হয় পরিবারের তরফে। শংকরবাবুর দেহ গুম করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন পরিজনরা। 

ওদিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, ওই দেহ শংকরবাবুই। দীর্ঘদিন করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি থাকায় তাঁর শারীরিক গঠনের পরিবর্তন হয়েছে। মুখ ভরেছে দাড়িতে। তাই দেহ চিনতে পারছেন না পরিবারের সদস্যরা। 

শেখ খবর পাওয়া পর্যন্ত হাসপাতালে পৌঁছেছে বাগুইআটি থানার পুলিশ। মৃতের কোনও জন্মদাগ রয়েছে কি না তা খুঁজে বার করার চেষ্টা চলছে। এব্যাপারে মৃতের স্ত্রীর সাহায্য নেওয়া হচ্ছে। দেহ পরিবার নিতে রাজি না হলে তা সরকারি পরিকাঠামোয় সৎকার করা হবে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

 

বন্ধ করুন