বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাংলাদেশের ইসলামিক মিছিল কলকাতার বলে অপপ্রচার, দিল্লির শিক্ষাবিদের নামে এফআইআর
কলকাতা পুলিশের টুইট
কলকাতা পুলিশের টুইট

বাংলাদেশের ইসলামিক মিছিল কলকাতার বলে অপপ্রচার, দিল্লির শিক্ষাবিদের নামে এফআইআর

  • ভিডিও–তে দেখা যাচ্ছে, বাংলাদেশের কোনও শহরে এক বিরাট মিছিলে হেঁটে চলেছেন মুসলিম সম্প্রদায়ের হাজার হাজার মানুষ। ভিডিও–র আবহে রয়েছে একটি গান যা বাংলাদেশের বলেই পরিচিত।

বাংলাদেশে হওয়া একটি ইসলামিক জনসভা তথা মিছিলের ভিডিও টুইট করে তা কলকাতার বলে দাবি করেন দিল্লির বাসিন্দা শিক্ষাবিদ ও মানবাধিকার কর্মী মধু পূর্ণিমা কিশোর। এভাবে সম্পূর্ণ ভুয়ো এবং ধর্মীয় উত্তেজনামূলক অপপ্রচারের চেষ্টা করায় সোমবার তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করল কলকাতা পুলিশ।

ভিডিও–তে দেখা যাচ্ছে, বাংলাদেশের কোনও শহরে এক বিরাট মিছিলে হেঁটে চলেছেন মুসলিম সম্প্রদায়ের হাজার হাজার মানুষ। ভিডিও–র আবহে রয়েছে একটি গান যা বাংলাদেশের বলেই পরিচিত। পাশাপাশি ভারতের প্রতিবেশী এই দেশের পতাকাও দেখা যাচ্ছে ওই ভিডিও–তে। ১:‌৪২ মিনিটের ওই ভিডিও–তে দাঙ্গা মোকাবিলায় ব্যবহৃত পোশাক পরে থাকতে দেখা গিয়েছে পুলিশ বাহিনীকে।

ভিডিও–র আবহে যে গান বাজছে তাতে শোনা যাচ্ছে, ‘‌ইসলামের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে হিন্দুস্তান (ভারত), তাই কোনও জায়গা পাবে না।’‌ রবিবার রাতে মধু পূর্ণিমা কিশোরের করা ওই টুইটে তিনি শুধু লিখেছেন, ‘কলকাতায়’‌। অর্থাৎ এই মিছিল হয়েছে কলকাতায়।

কলকাতা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (‌অপরাধ)‌ মুরলীধর শর্মা জানিয়েছেন, মধু পূর্ণিমা কিশোরের বিরুদ্ধে একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। গোয়েন্দা বিভাগের তথ্য প্রযুক্তি সেল এ জাতীয় অভিযোগ নিয়ে কাজ করে। একইসঙ্গে মধু পূর্ণিমা কিশোরের ওই টুইটের ওপর ‘‌ফেক’‌ বা ভুয়ো লিখে পাল্টা টুইট করেছে কলকাতা পুলিশ। তাতে লেখা, ‘‌বাংলাদেশের এই ভিডিও ক্লিপটিকে কলকাতার বলে দাবি করে ভুয়ো বিভ্রান্তিকর প্রচার করা হয়েছে। এর বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।’‌

সুপ্রিম কোর্টের প্রখ্যাত আইনজীবী এবং সমাজকর্মী প্রশান্ত ভূষণ কলকাতা পুলিশের পোস্টটি রিটুইট করেছেন। তাতে তিনি লিখেছেন, দুর্দান্ত। এই সব ভুয়ো খবরের মাধ্যমে যারা ঘৃণা ছড়ায় তাদের অবশ্যই নজরে রাখতে হবে। এই মহিলা একজন ধারাবাহিক অপরাধী।’‌ তৃণমূল সাংসদ ও দলীয় মুখপাত্র সৌগত রায় বলেন, ‘‌যারা এভাবে ভুয়ো সংবাদ ছড়িয়ে দেয় তাদের তীব্র নিন্দা জানাই। মানুষ যতই চেষ্টা করুক না কেন, পশ্চিমবঙ্গের ধর্মনিরপেক্ষ পরিবেশ নষ্ট করতে পারবে না।’‌

উল্লেখ্য, সোমবার দুপুর ৩টে পর্যন্ত মধু পূর্ণিমা কিশোরের ওই টুইট ২৬৮১ বার রিটুইট করা হয়েছে এবং তার পোস্টে ৪৩৮৫–রও বেশি কমেন্ট করা হয়েছে। পরে অবশ্য সেই টুইট–টি মুছে দিয়েছেন তিনি। তাঁর এক টুইটার ফলোয়ারের টুইট রিটুইট করে জানিয়েছেন যে তিনি জানতে পেরেছেন যে ওই ভিডিওটি আসলে বাংলাদেশের। এর আগেও বেশ কয়েক বার বাংলাদেশের বিতর্কিত ভিডিও ভারতের বলে পোস্ট করে নজর কেড়েছেন মধু পূর্ণিমা কিশোর।

বন্ধ করুন