বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > কলকাতা পুলিশের তৎপরতায় ভেস্তে গেল পাচারের চেষ্টা, উদ্ধার বিহারের ২১ জন নাবালক
ধৃত পাচারকারী মহম্মদ আয়েশান, মহম্মদ আফজল ও মহম্মদ চাঁদ। ছবি সৌজন্য : টুইটার
ধৃত পাচারকারী মহম্মদ আয়েশান, মহম্মদ আফজল ও মহম্মদ চাঁদ। ছবি সৌজন্য : টুইটার

কলকাতা পুলিশের তৎপরতায় ভেস্তে গেল পাচারের চেষ্টা, উদ্ধার বিহারের ২১ জন নাবালক

  • নোবেলজয়ী কৈলাস সত্যার্থীর প্রতিষ্ঠিত ‘‌বচপন বাঁচাও আন্দোলন’ সংস্থার এক সদস্য মারফত খবর পেয়ে এদিন ভোর সাড়ে ৫টা নাগাদ বাবুঘাট বাস স্ট্যান্ডে হানা দেয় কলকাতা পুলিশের একটি দল।

এবার খাস কলকাতায় পাচারের চেষ্টা। তবে নারী পাচার নয়, এবার নাবালকদের পাচারের অভিযোগ। সোমবার কমবেশি ২১ জন নাবালককে স্ট্র‌্যান্ড রোডে বাবুঘাট বাস স্ট্যান্ড থেকে উদ্ধার করে কলকাতা পুলিশ। প্রত্যেকের বয়স ১৬ বছরেরও কম। ঘটনায় তিনজন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই নাবালকদের কোনও কারখানায় শ্রমিকের কাজে লাগানোর জন্য আনা হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে।

নোবেলজয়ী কৈলাস সত্যার্থীর প্রতিষ্ঠিত ‘‌বচপন বাঁচাও আন্দোলন’ সংস্থার এক সদস্য মারফত খবর পেয়ে এদিন ভোর সাড়ে ৫টা নাগাদ বাবুঘাট বাস স্ট্যান্ডে হানা দেয় কলকাতা পুলিশের একটি দল। বাসে করে হাওড়ার দিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল ওই নাবালকদের। রাস্তায় বাসটিকে পাকড়াও করে তাদের উদ্ধার করে পুলিশ। ওরা প্রত্যেকেই বিহারের সমস্তিপুরের বাসিন্দা।

‘‌বচপন বাঁচাও আন্দোলন’ সংস্থার পশ্চিমবঙ্গের কোঅর্ডিনেটরের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে মহম্মদ আয়েশান (‌২২)‌, মহম্মদ আফজল (‌২৮)‌ এবং মহম্মদ চাঁদ (‌২৩)‌ নামে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই নাবালকদের কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল তা জানতে এদের জেরা করে হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। একইসঙ্গে এই চক্রে সামিল অন্যদের খোঁজও শুরু হয়েছে।

এদিকে, উদ্ধার হওয়া ওই নাবালকদের এক সরকারি হোমে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। পাশাপাশি তাদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন