বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মুকুল রায়ের চেয়ারে কৃষ্ণ কল্যাণী? PAC-র চেয়ারম্যান বিতর্ক মেটার সম্ভাবনা কম

মুকুল রায়ের চেয়ারে কৃষ্ণ কল্যাণী? PAC-র চেয়ারম্যান বিতর্ক মেটার সম্ভাবনা কম

তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন রায়গঞ্জের বিজেপি বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণী। ফাইল ছবি

সোমবার বিধানসভার PAC-র সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দেন মুকুল রায়। মঙ্গলবার তাঁর ইস্তফা গ্রহণ করেছেন স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। এর পর জানা যায়, PAC-র পরবর্তী চেয়াম্যান হিসাবে রায়গঞ্জে বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণীকে নির্বাচিত করেছেন তিনি।

মুকুল রায়ের ইস্তফার পর বিধানসভার পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান পদে বসতে চলেছেন আরেক দলত্যাগী কৃষ্ণ কল্যাণী। এমনই খবর পাওয়া যাচ্ছে বিধানসভা সূত্রে। শেষ পর্যন্ত তেমনটা হলে মুকুলের ইস্তফার পরেও মিটবে না PAC-র চেয়ারম্যান নিয়ে বিতর্ক।

সোমবার বিধানসভার PAC-র সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দেন মুকুল রায়। মঙ্গলবার তাঁর ইস্তফা গ্রহণ করেছেন স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। এর পর জানা যায়, PAC-র পরবর্তী চেয়াম্যান হিসাবে রায়গঞ্জে বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণীকে নির্বাচিত করেছেন তিনি। বিধানসভা ভোটে বিজেপির টিকিটে জিতে কয়েক মাসের মধ্যেই তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন যিনি।

গত বিধানসভা নির্বাচনে রায়গঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপির টিকিটে জয়ী হন পেশায় ব্যবসায়ী কৃষ্ণ কল্যাণী। তার পর থেকেই দলের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন তিনি। অবশেষে ২৭ অক্টোবর পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের হাত থেকে তৃণমূলের পতাকা তুলে নেন তিনি। বিধানসভায় কৃষ্ণ কল্যাণীর বিরুদ্ধেও দলত্যাগবিরোধী আইন প্রয়োগের দাবি জানিয়েছে বিজেপি। কিন্তু তা নিয়ে এখনো কোনও পদক্ষেপ করেননি স্পিকার। অর্থাৎ বিধানসভায় এখনো খাতায় কলমে বিজেপি বিধায়কই রয়েছেন কৃষ্ণ কল্যাণী। যদিও অধিবেশন কক্ষে আর বিজেপি বিধায়কদের সঙ্গে বসেন না তিনি। সেই কৃষ্ণ কল্যাণীকে PAC-র চেয়ারম্যান করলে ফের একই অভিযোগে সরব হতে পারে বিজেপি। বলে রাখি, প্রথা মেনে PAC-র চেয়ারম্যান পদটি বিরোধীদের প্রাপ্য।

মঙ্গলবার মুকুল রায়কে ফোন করেন স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। জানতে চান তাঁর ইস্তফা দেওয়ার কারণ। মুকুল রায়ের বক্তব্য শুনে ইস্তফা গ্রহণ করেন তিনি।

 

বন্ধ করুন