বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাবা ছিলেন CPM-এর পঞ্চায়েত প্রধান, রসে বসেই বড় হয়েছেন, তবু লোভই কাল হল কুন্তলের

বাবা ছিলেন CPM-এর পঞ্চায়েত প্রধান, রসে বসেই বড় হয়েছেন, তবু লোভই কাল হল কুন্তলের

কুন্তল ঘোষ। লাল বৃত্তের ভিতরে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, কুন্তলের বাবার এলাকায় সারের দোকান ছিল। এছাড়া একটি অ্যালুমিনিয়ামের সামগ্রী তৈরির ছোট কারখানাও ছিল। ফলে বেশ রসে বসেই বড় হয়েছেন কুন্তল।

বাবা ছিলেন সিপিএমের পঞ্চায়েত প্রধান। দান – ধ্যানে এলাকায় খ্যাতি ছিল তাঁর। ছেলেও পেয়েছে বাবার ধাত। সেই কুন্তল যে শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিতে যুক্ত শুনে হতবাক প্রতিবেশীরা। এমনকী এব্যাপারে তিনি ঘুণাক্ষরেও জানতেন না বলে দাবি করেছেন কুন্তুলের পৈত্রিক বাড়ির কেয়ারটেকার।

চাকরিপ্রার্থীদের থেকে ৩০ কোটি টাকা ঘুষ নিয়েছেন তিনি। শনিবার গ্রেফতার হওয়া যুব তৃণমূল নেতা কুন্তল ঘোষের বিরুদ্ধে আদালতে এমনই দাবি করেছেন ইডির আইনজীবী। তাঁকে নিয়ে গ্রামের বাড়িতে খোঁজ নিতে গিয়ে উঠে এল একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য।

হুগলির শ্রীপুর – বলাগড় গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দা কুন্তলরা। বাবা স্বপন ঘোষ ছিলেন সিপিএমের পঞ্চায়েত প্রধান। ২০১১ সালে বামেদের বানপ্রস্থের পর ধনেখালিতে যৌথ মালিকানায় একটি বিএড কলেজ খোলেন তিনি। তবে তখন রাজনীতির সঙ্গে তেমন যোগ ছিল না তাঁর।

২০১৬ সালে তৃণমূলে যোগদান করেন কুন্তল। আর তৃণমূলে তাঁর উত্থান চোখে পড়ার মতো। তৃণমূলে যোগদান করেই অভিষেকের নেকনজরে পড়েন তিনি। এমনকী অধুনা দলের যুব সংগঠনের সভানেত্রী সায়নী ঘোষেরও অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ কুন্তল।

প্রতিবেশীরা জানাচ্ছেন, গরিব মানুষের বাড়িতে বিয়ে বা অন্য কোনও প্রয়োজনে দান ধ্যান করতেন কুন্তলের বাবা। সেই ধারা পেয়েছিলেন কুন্তলও। কিন্তু কোথা থেকে আসত এত টাকা? স্থানীয়রা জানিয়েছেন, কুন্তলের বাবার এলাকায় সারের দোকান ছিল। এছাড়া একটি অ্যালুমিনিয়ামের সামগ্রী তৈরির ছোট কারখানাও ছিল। ফলে বেশ রসে বসেই বড় হয়েছেন কুন্তল।

স্থানীয়রা জানান, গত মাসেই গ্রামের বাড়িতে এসেছিলেন কুন্তল। স্থানীয়দের সঙ্গে পিকনিক করেন তিনি। কুন্তলের গ্রামের বাড়ির পরিচারক জানিয়েছেন, কলকাতায় ফ্ল্যাট কিনে চলে যাওয়ার পর গ্রামের বাড়িতে কম আসতেন কুন্তল। বাড়িতে তিনি ছাড়াও কুকুরদের দেখভাল করার জন্য রয়েছেন এক ব্যক্তি। এছাড়া পুরোহিত রোজ এসে পুজো দিয়ে যান।

কুন্তলের গ্রেফতারিতে সিপিএমের প্রতিক্রিয়া, কুন্তলকে ছোট থেকে চিনি। তৃণমূল লোকে করেই টাকা রোজগার করতে। তবে এরকম কুন্তল আরও রয়েছে। তাদের সবার গ্রেফতারি চাই।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

 

বন্ধ করুন