বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Metro: পর্যাপ্ত কাউন্টার নেই, ব্যস্ত সময়ে মেট্রোর টিকিট কাটতে ভোগান্তি
দিনের ব্যস্ততম সময়ে এভাবেই ভিড় হয় মেট্রোতে।

Metro: পর্যাপ্ত কাউন্টার নেই, ব্যস্ত সময়ে মেট্রোর টিকিট কাটতে ভোগান্তি

  • মেট্রো কর্তৃপক্ষ আপাতত অ্য়াপ ডাউনলোড করে অথবা ভেন্ডিং মেশিনের মাধ্যমে টিকিট কাটার পরামর্শ দিচ্ছে। এর জেরে টিকিট কাউন্টারে যাত্রীদের চাপ কিছুটা কমতে পারে বলেই মনে করছেন মেট্রো কর্তৃপক্ষ।

অতিমারির সেই ভয়াবহ দিন অনেকটাই কাটিয়ে উঠছে শহর কলকাতা। অফিস টাইমে মেট্রোতে একেবারে ঠাসাঠাসি ভিড়। আর যাত্রীদের অভিযোগ দিনের ব্যস্ততম সময়ে হাতে গোনা কয়েকটি মাত্র কাউন্টার খোলা থাকছে। যার জেরে সমস্য়ায় পড়ে যাচ্ছেন সাধারণ মেট্রো যাত্রীরা। কিন্ত কেন এমন হল?

যাত্রীদের একাংশের মতে, অতিমারির সময় কেবলমাত্র স্মার্ট কার্ডের মাধ্যমে যাতায়াত শুরু হয়েছিল। সেকারণে টিকিট কাউন্টারের সংখ্যাও কমে গিয়েছিল। পরে যাত্রী পরিষেবা স্বাভাবিক হলেও কাউন্টারের সংখ্যা বাড়েনি। দমদম স্টেশনে মাঝেমধ্যে দেখা যাচ্ছে টিকিট কাটার জন্য দীর্ঘ লাইন। শুধু দমদম নয়, কালীঘাট, এসপ্ল্যানেডের মতো স্টেশনেও একই পরিস্থিতি। দুটি অথবা তিনটি মাত্র কাউন্টার খোলা থাকছে।

মূলত সমস্যায় পড়ছেন যাঁরা টোকেন ব্যবহার করেন। যাঁদের স্মার্ট কার্ড রয়েছে তাদের রোজ লাইনে দাঁড়ানোর প্রয়োজন নেই। কিন্তু যাঁরা টোকেন ব্যবহার করেন তাঁরা কী করবেন? অগত্যা লাইনেই দাঁড়াতে হচ্ছে তাঁদের। তবে মেট্রো সূত্রে খবর, মূলত কর্মী সংকটের জন্য এই পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে। কলকাতায় নতুন একাধিক স্টেশন চালু হয়েছে। সেখানে যাত্রীদের ভিড়ও বাড়ছে। সেক্টর ফাইভ থেকে শুরু করে শিয়ালদহ যাত্রী সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। কিন্তু সেই তুলনায় মেট্রোর কর্মী সংখ্যা সেভাবে বাড়েনি। যার ফল ভুগছেন সাধারণ যাত্রীরা।

তবে মেট্রো কর্তৃপক্ষ আপাতত অ্য়াপ ডাউনলোড করে অথবা ভেন্ডিং মেশিনের মাধ্যমে টিকিট কাটার পরামর্শ দিচ্ছে। এর জেরে টিকিট কাউন্টারে যাত্রীদের চাপ কিছুটা কমতে পারে বলেই মনে করছেন মেট্রো কর্তৃপক্ষ।

বন্ধ করুন