বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > সব আসন ছেড়ে কেবল ভবানীপুরে কেন উপনির্বাচন? হাই কোর্টে সওয়াল বিকাশ ভট্টাচার্যের
বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। ফাইল ছবি
বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। ফাইল ছবি

সব আসন ছেড়ে কেবল ভবানীপুরে কেন উপনির্বাচন? হাই কোর্টে সওয়াল বিকাশ ভট্টাচার্যের

  • 'সাংবিধানিক সংকট' এড়াতে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কেন্দ্র ভবানীপুরে। আর এই নির্বাচন নিয়ে দায়ের হয়েছে জনস্বার্থ মামলা।

রাজ্যের বেশ কয়েকটি বিধানসভা আসনই ফাঁকা। সেখানে প্রয়োজন উপনির্বাচন। তবে সেই আসনগুলিতে কবে উপনির্বাচন হবে, তা জানা নেই। এরই মধ্যে 'সাংবিধানিক সংকট' এড়াতে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কেন্দ্র ভবানীপুরে। আর এই নিয়ে আপত্তি আইনজীবী বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্যর। তাঁর প্রশ্ন, শুধুমাত্র ভবানীপুরে কেন উপনির্বাচন হবে? আর এই প্রশ্ন করেই কলকাতা হাই কোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করলেন বিকাশ ভট্টাচার্য।

ভবানীপুর কেন্দ্রে উপননির্বাচন প্রসঙ্গে বিকাশবাবু বলেন, 'একজন ব্যক্তি যদি নির্বাচনে না লড়েন, তাহলে যে সাংবিধানিক সংকট তৈরি হবে, এই বুদ্ধি কে দিল? মুখ্যসচিব বললেন, আর নির্বাচন কমিশন তা মেনেও নিল। আমার এক জুনিয়র আইনজীবী মামলা করেছেন। ওই মামলায় আমি সওয়াল করব। রাজ্যের সরকার পৌর নির্বাচন করাচ্ছে না এতদিন হয়ে গেল। কিন্তু উপনির্বাচন নিয়ে বেশ উত্সাহী রাজ্য প্রশাসন। আসলে সবটাই হচ্ছে একজন ব্যক্তির জন্য।'

রাজ্যে মোট ৫টি কেন্দ্রে উপনির্বাচন করার কথা। পাশাপাশি দু'টি কেন্দ্রে নির্বাচন করা হয়নি। এই সব কেন্দ্রগুলিতেই একসঙ্গে নির্বাচন করার কথা থাকলেও কলকাতার ভবানীপুর কেন্দ্রে উপনির্বাচন করার আর্জি জানিয়ে নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দিয়েছিলেন রাজ্যের মুখ্যসচিব এইচকে দ্বিবেদী। মুখ্যসচিবের দাবি মেনে একটি আসনে উপনির্বাচন এবং রাজ্যের দুটি আসনে নির্বাচন করাতে সম্মত হয় কমিশন। এর বিরুদ্ধে গতকাল কলকাতা হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা হয় কয়েকদিন আগেই।

ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি বিন্দালের এজলাসে মামলাটির শুনানি হবে ১৩ সেপ্টেম্বর। এই ইস্যুতে দুটি পৃথক মামলা করেছেন আইনজীবী রমাপ্রসাদ সরকার এবং আইনজীবী সায়ন বন্দ্যোপাধ্যায়। বক্তব্য, করোনা পরিস্থিতির মধ্যে নির্বাচন কমিশনের কিছু জায়গায় নির্বাচনের এই সিদ্ধান্ত একতরফা। পাশাপাশি রাজ্যের মুখ্যসচিব এইভাবে একটা কেন্দ্রে নির্বাচনের জন্য চিঠি পাঠাতে পারেন না।

বন্ধ করুন