ফাইল ছবি (PTI)
ফাইল ছবি (PTI)

পশ্চিমবঙ্গে কার্ফু নয়, ২১ মে খুলবে সব দোকান, ২৭ মে থেকে চলবে অটো, নবান্নে মমতা

  • ২৭ মে থেকে হকারদের দোকান খোলার অনুমতি দেওয়ার কথা ভাবছে সরকার।

কেন্দ্রের নির্দেশে পশ্চিমবঙ্গে জারি হবে না নাইট কার্ফু। তবে কড়া ভাবে বলবৎ হবে লকডাউনের নিয়ম। সোমবার নবান্নে এমনটাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সঙ্গে এদিন তিনি বলেন, কনটেনমেন্ট এ জোনের বাইরে বৃহস্পতিবার থেকে খোলা থাকবে সব দোকান। ২৭ মে থেকে দোকান খুলতে পারবেন হকাররা। তবে ৩১ মে পর্যন্ত লকডাউন জারি থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি। 

এদিন মমতা বলেন, কেন্দ্রের নির্দেশ মেনে ৩১ মে পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গে জারি থাকবে লকডাউন। তবে কনটেনমেন্ট এ জোনের বাইরে শিথিল করা হবে লকডাউনের বিধি। মুখ্যমন্ত্রী জানান, ২১ মে থেকে থেকে কনটেনমেন্ট এ জোনের বাইরে খুলবে বড় দোকান। তবে শপিং মল খোলা যাবে না। শপিং মলে কোনও সংস্থার দফতর থাকলে তা সরকারি নিয়ম মেনে চালানো যাবে।

একই সঙ্গে সেলুন খোলা যাবে বলে জানিয়েছেন মমতা। তবে তা চালু রাখতে হবে অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে। একজনের জন্য ব্যবহার করা ছুরি কাঁচি অন্যের জন্য ব্যবহার করা যাবে না বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রত্যেকের জন্য জীবাণুমুক্ত করতে হবে ছুরি কাঁচি।

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ২৭ মে থেকে হকারদের দোকান খোলার অনুমতি দেওয়ার কথা ভাবছে সরকার। সেজন্য কলকাতার প্রশাসক বোর্ডের প্রধান ফিরহাদ হাকিম, পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা, এডিজি আইন শৃঙ্খলা জ্ঞানবন্ত সিং-সহ আরও কয়েকজনকে নিয়ে কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন। 

এছাড়া ২৭ মে থেকে অটো রিকশ চলবে বলেও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, অটো রিকশয় নেওয়া যাবে ২ জন করে যাত্রী। 

তবে পশ্চিমবঙ্গে নাইট কার্ফু জারি হবে না বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, কার্ফু সাধারণত সিরিয়াস কিছু হলে আমরা বলবৎ করি। তাই এই শব্দটায় মানুষের একটা আতঙ্ক রয়েছে। আমরা নাইট কার্ফু বলবৎ করব না। তবে রাতে লকডাউন কড়া ভাবে পালন করতে হবে। কেউ রাতে লকডাউন ভাঙলে তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ করবে প্রশাসন। 

 

বন্ধ করুন