বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকে থাকছেন না বিরোধী দলনেতা, তথ্য কমিশনার নিয়োগ ইস্যু
শুভেন্দু অধিকারী
শুভেন্দু অধিকারী

মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকে থাকছেন না বিরোধী দলনেতা, তথ্য কমিশনার নিয়োগ ইস্যু

  • আজ, মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সেই বৈঠকে যোগ দেবেন না বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

বারেবারে বিধানসভা বয়কট করেছেন তিনি। রাজ্যের নানা বৈঠকে থাকেন না তিনি। এবার মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকেও অনুপস্থিত থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। হ্যাঁ, তিনি রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। রাজ্যে তথ্য কমিশনার নিয়োগ নিয়ে বৈঠক রয়েছে। আজ, মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সেই বৈঠকে যোগ দেবেন না বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

তাঁর যোগ না দেওয়ার কারণ?‌ এই বিষয়ে শুভেন্দুর অভিযোগ, রাজ্যের তথ্য কমিশনার পদে যাঁরা আবেদন করেছেন, তাঁদের বিষয়ে কোনও তথ্য তাঁকে আগে জানানো হয়নি। শুধু বৈঠকের কথা জানিয়ে তাঁকে চিঠি পাঠিয়েছেন স্বরাষ্ট্র (কর্মিবর্গ) দফতরের সচিব বি কে গোপালিকা। পাল্টা চিঠি দিয়ে বৈঠকে না থাকার কথা জানিয়ে দিয়েছেন বিরোধী দলনেতা। এমনকী জানিয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কেও।

জানা গিয়েছে, সাংবিধানিক কয়েকটি পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে বিধানসভার স্পিকার, মুখ্যমন্ত্রী এবং বিরোধী দলনেতাকে নিয়ে কমিটি গড়ে তোলা হয়। এটাই নিয়ম। তাঁদের বৈঠকও হয় এসব ক্ষেত্রে। তাই তথ্য কমিশনার নিয়োগের জন্য বৈঠক হওয়ার কথা স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘরে। কিন্তু এই বৈঠকে না থাকার সিদ্ধান্তই নিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। এই বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সাংবিধানিক পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে মুখ্যমন্ত্রী–বিরোধী দলনেতাকে বৈঠকে বসতে হয়। তবে এক সপ্তাহ আগে সংশ্লিষ্ট পদের আবেদনকারীদের তথ্য পাঠাতে হয়। ১২ ঘণ্টা আগে বৈঠকের চিঠি পাঠানো নিয়ম নয়।’‌

শুভেন্দুর মন্তব্য নিয়ে অনেকে বলছেন, মুখ্যমন্ত্রীর সামনে বসার সাহস নেই বলেই বৈঠক এড়িয়ে গেলেন। আবার একাংশ বলছেন, মুখ্যমন্ত্রীও শুভেন্দুর মুখ দেখতে চান না। তাই ১২ ঘন্টা আগে চিঠি পাঠানো হয়েছে। শুভেন্দু না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেবেন। তাতেই সফল হবে কৌশল। যদিও তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তাপস রায় বলেন, ‘উনি আগে কেন্দ্রীয় সরকারকে সাংবিধানিক রীতি–নীতি মানতে বলুন। তার পরে রাজ্যকে বলবেন।’

বন্ধ করুন