বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মদন মিত্র কে? পাগলে কী না বলে, ছাগলে কী না খায়?: ফিরহাদ

মদন মিত্র কে? পাগলে কী না বলে, ছাগলে কী না খায়?: ফিরহাদ

ফিরহাদ হাকিম।

ফিরহাদের প্রশ্ন, ‘মদন মিত্র কে? ট্রেনিং দেওয়ার ক্ষমতা তার নেই। তিনি পঞ্চায়েত এলাকায় থাকেন না। তিনি রাজ্যের মন্ত্রিসভার সদস্য নন। অভিষেক যা বলেছে সেটাই চূড়ান্ত’।

দলীয় কর্মীদের অস্ত্র প্রশিক্ষণ দেওয়ার লোক আছে বলে মন্তব্য করে দলেরই ভর্ৎসনার মুখে পড়লেন কামারহাটির তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্র। রবিবার মদনের ওই মন্তব্য নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, পাগলে কী না বলে, ছাগলে কী না খায়? এমনকী, মদন মিত্র কে? এমন মন্তব্য করতেও শোনা যায় ফিরহাদকে।

এদিন ফিরহাদ বলেন, ‘পাগলে কী না বলে, ছাগলে কী না খায়? অভিষেক আমার পার্টির সাধারণ সম্পাদক। ও যেটা বলছে সেটা আমাদের পার্টির বক্তব্য। আমরা চাই ১০০ শতাংশ শান্তিপূর্ণ ভোট হোক। ওই ফুচকি ফুচকি কথা বলে সংবাদমাধ্যমের জনপ্রিয়তা অর্জন নয়, পার্টির সিদ্ধান্ত শান্তিপূর্ণ ভোট। মানুষ শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দেবে। যদি বিরোধীরা উত্তপ্ত করার চেষ্টা করে। যেটা ওরা এখন থেকে করছে। সেব্যাপারে আমরা পুলিশ ও নির্বাচন কমিশনকে তৎপর হতে বলব’।

এর পরই ফিরহাদের প্রশ্ন, ‘মদন মিত্র কে? ট্রেনিং দেওয়ার ক্ষমতা তার নেই। তিনি পঞ্চায়েত এলাকায় থাকেন না। তিনি রাজ্যের মন্ত্রিসভার সদস্য নন। অভিষেক যা বলেছে সেটাই চূড়ান্ত’।

ফিরহাদের মন্তব্যকে আক্রমণ করে বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘কে পাগল? ববি হাকিম পাগল না মদন মিত্র পাগল? মানুষের মনে এই একটাই প্রশ্ন। ওরা পর্যাপ্ত অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র মজুত করেছেন। প্রত্যেক নেতার বাড়িতে অবৈধ টাকা আর অবৈধ অস্ত্র আছে। বার করুন। পুলিশ সেগুলো উদ্ধার করছে না কেন? ওরা যদি মনে করেন পুরো সমাজের অপরাধীকরণ করিয়ে দেবেন, তাহলে তো মুশকিল। মানুষ এই ভেবে ওদের ভোট দিয়েছিল না কি’?

পালটা মদন বলেন, ‘ববি আমাকে পাগল বললে দুঃখ পাই না। কিন্তু দিলীপ পাগল বললে দুঃখ হয়। একটা পাগল আরেকটা পাগলকে পাগল বললে দুঃখ তো হবেই। ববি আমার ছোট ভাই। ও আমাকে পাগল বললে ধন্য আমার সে পাগলামি’।

 

বন্ধ করুন