বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বন্যপ্রাণ আইনে পোষা নিষিদ্ধ, সেই চন্দনা টিয়ার সঙ্গে নাতির ছবি পোস্ট করলেন মদন
বাঁ দিকে মদন মিত্রের নাতি মহারূপ। ডান দিকে মদন মিত্র।

বন্যপ্রাণ আইনে পোষা নিষিদ্ধ, সেই চন্দনা টিয়ার সঙ্গে নাতির ছবি পোস্ট করলেন মদন

  • শনিবার বিকেল ৫.৫৭ মিনিটে মদন মিত্রের ইন্সটাগ্রাম প্রোফাইলে পোস্ট করা হয় একটি রিল। রিলটি বানানো বেশ কয়েকটির স্টিল ছবির কোলাজ করে। ছবিতে সাদা শার্ট ও ধূসর ব্লেজারে দেখা যাচ্ছে মদন মিত্রের নাতি মহারূপ মিত্রকে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর জনপ্রিয়তা প্রশ্নাতীত। তাঁর শেয়ার করা ছবি-ভিডিয়ো দেখেন লক্ষ লক্ষ মানুষ। সেই মদন মিত্রের শেয়ার করা কিছু ছবি ঘিরে এবার শুরু হল বিতর্ক। ছবিতে মদন মিত্রের নাতি মহারূপ মিত্রকে দেখা যাচ্ছে চন্দনা টিয়া বা আলেকজান্দ্রিয়ান প্যারাকিট হাতে। ভারতীয় বন সংরক্ষণ আইনে যে পাখি বন্দি রাখার আইনত দণ্ডনীয়।

শনিবার বিকেল ৫.৫৭ মিনিটে মদন মিত্রের ইন্সটাগ্রাম প্রোফাইলে পোস্ট করা হয় একটি রিল। রিলটি বানানো বেশ কয়েকটির স্টিল ছবির কোলাজ করে। ছবিতে সাদা শার্ট ও ধূসর ব্লেজারে দেখা যাচ্ছে মদন মিত্রের নাতি মহারূপ মিত্রকে। তার হাতে বসে চন্দনা টিয়া। ছবির প্রচ্ছদে দেখা যাচ্ছে দেওয়া টাঙানো মদন মিত্রের ছবি। অন্তত ৫টি ছবি রয়েছে কোলাজটিতে। যাতে ২টি চন্দনা টিয়া দেখা গিয়েছে।

বলে রাখি, গত মার্চে একটি বেজির সঙ্গে ছবি পোস্ট করে বিতর্কে জড়ান অভিনেত্রী শ্রাবন্তী। বন্যপ্রাণ আইন অনুসারে ওই প্রাণী বন্দি করা নিষিদ্ধ হলেও শ্রাবন্তী কী ভাবে তা পেলেন তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। এবিষয়ে তৎপর হয় বনদফতরের ওয়াল্ডলাইফ ক্রাইম কন্ট্রোল সেল। অভিনেত্রীকে জেরা করে তারা জানতে পারে বেজিটি সেটে এনেছিলেন তাঁর এক গাড়িচালক। এর পর গাড়িচালককে গ্রেফতার করে বনবিভাগ।

 

বন্ধ করুন