বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > স্বেচ্ছামৃত্যুর অনুমতি চেয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ মাদ্রাসা শিক্ষকরা
কলকাতা হাইকোর্ট (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
কলকাতা হাইকোর্ট (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

স্বেচ্ছামৃত্যুর অনুমতি চেয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ মাদ্রাসা শিক্ষকরা

  • মামলাকারীদের পক্ষে জানানো হয়েছে, বিনা বেতনে ৯ বছর কাজ করছেন তাঁরা। তাই আদালতের সামনে তাঁরা তিনটি বিকল্প রেখেছেন।

দীর্ঘ ৯ বছর মেলেনি বেতন। কোনওক্রমে বেঁচে আছেন তাঁরা। তাই স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন মাদ্রাসা শিক্ষকরা। ১৬ জন মাদ্রাসা শিক্ষক এই মামলা করেছেন। 

রাজ্যের ২৩৪টি অনুমোদনহীন মাদ্রাসায় রয়েছেন প্রায় ২,৫০০ জন শিক্ষক। মামলাকারীদের অভিযোগ, তৃণমূল জমানায় গত ৯ বছর বেতন পাচ্ছেন না তাঁরা। এই পরিস্থিতিতে আদালত তাঁদের স্বেচ্ছামৃত্যুর অনুমতি দিক। 

মামলাকারীদের পক্ষে জানানো হয়েছে, বিনা বেতনে ৯ বছর কাজ করছেন তাঁরা। তাই আদালতের সামনে তাঁরা তিনটি বিকল্প রেখেছেন। প্রথমত, সরকারকে সমস্ত বকেয়া বেতন মিটিয়ে দেওয়ার অনুমতি দিক হাইকোর্ট। দ্বিতীয়ত, নইলে শিক্ষকদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা দিক আদালত। আর তাও সম্ভব না হলে স্বেচ্ছামৃত্যুর অনুমতি দিন বিচারপতি। 

গত কয়েক মাস ধরেই রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনের ঝাঁঝ বাড়িয়েছেন পার্শ্বশিক্ষক ও মাদ্রাসা শিক্ষকরা। সরকারের কাছে সম্মানজনক বেতনক্রম ও বকেয়া বেতনের দাবি জানিয়েছেন তারা। রাজ্যের ভোট অন অ্যাকাউন্ট বাজেটে পার্শ্বশিক্ষকদের বছরে ৩ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু মূল দাবিগুলি নিয়ে এখনো নীরব সরকার।

 

বন্ধ করুন