বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আমি বিশ্ববাংলা লোগো তৈরি করে সরকারকে দিয়েছি, ওটা এখন সরকারের: লোগো বিতর্কে মমতা
নেতাজি ইন্ডোরের অনুষ্ঠানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

আমি বিশ্ববাংলা লোগো তৈরি করে সরকারকে দিয়েছি, ওটা এখন সরকারের: লোগো বিতর্কে মমতা

  • সরকার স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের জামাকাপড় কিনে দিচ্ছে। তাতে রাজ্য সরকারের লোগো থাকলে সারাবিশ্ব জানতে পারবে এটা বাংলা সরকারের ব্রান্ড।

রাজ্য সরকার স্কুলের পোশাক নিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করতেই তৈরি হয়েছে বিতর্ক। বিরোধীদের বক্তব্য, স্কুলের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করতে চাইছে রাজ্য। তার ওপর পোশাকে বিশ্ব বাংলার লোগো ব্যবহার করে তৃণমূল নিজেদেরই প্রচার চালাতে চায়ছে। এই বিতর্ক নিয়ে এবার মুখ খুললেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিশ্ব বাংলা লোগোটি যে তৃণমূলের নয়, এটি রাজ্য সরকারের লোগো সেই দাবি এদিন করেন মুখ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘সরকার স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের জামাকাপড় কিনে দিচ্ছে। তাতে রাজ্য সরকারের লোগো থাকলে সারাবিশ্ব জানতে পারবে এটা বাংলা সরকারের ব্রান্ড। এনিয়ে কে একজন কেস করে দিয়েছে। একটা কেস না ফেস করে দিয়েছে। কিছু খোঁজ রাখে না। তৃণমূলেরই যত দোষ। তৈরি হয়েছে কিছু নন্দ ঘোষ। রাম বাম শামের দল। বলছে নাকি ওটা তৃণমূলের লোগো। আমি অবশ্য কোর্টের ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করতে চাই না। আদালত তার সিদ্ধান্ত নেবে। কিন্তু আমি বাংলার নামটাকে ভুলব কী করে।’

নেতাজি ইন্ডোরে বিধবা ভাতা নিয়ে একটি অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এটা তো প্রাইভেট স্কুলের জন্য নয়। বিনা পয়সায় যেখানে ড্রেস জুতো দেওয়া হয় সেখানে একটা সরকারের লোগো থাকবে না! এটা গভর্মেন্টের ব্র্যান্ড। লোগোটা আমি তৈরি করেছিলাম। আর তৈরি করে ওটা বাংলা গভর্নমেন্টকে দিয়েছিলাম। আইন করে ওটা বাংলা গভর্নমেন্টের কাছে আছে। এটা আমি নিজে এঁকেছি। গভর্নমেন্টের যত লোগো ম্যাক্সিমাম আমার করে দেওয়া। তারজন্য আমি পয়সা নিই না এবং নামও কিনি না। এটা আমার দায়বদ্ধতা এবং দায়িত্ব। প্রাইভেট স্কুল নিজেদের ইচ্ছেমত লোগো ব্যবহার করতেই পারে আমাদের তো আপত্তি নেই। এমনকি সরকারি স্কুলে অনেক ব্যাজ থাকে সেগুলো লাগাতে পারে আমাদের তো কোনও আপত্তি নেই। ভারত সরকারের নামে ভারত সরকার যদি স্টাম্প লাগাতে পারে তাহলে বাংলা নামের বাংলা কেন পারবে না।’

বন্ধ করুন