বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Mamata-Abhishek Rift: ‘সবসময় কুটুস কুটুস… আমার সঙ্গে অভিষেকের লাগাচ্ছে’,বন্দ্যোপাধ্যায় পরিবারে ‘চিড়’ নিয়ে বিস্ফোরক মমতা
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Utpal Sarkar)

Mamata-Abhishek Rift: ‘সবসময় কুটুস কুটুস… আমার সঙ্গে অভিষেকের লাগাচ্ছে’,বন্দ্যোপাধ্যায় পরিবারে ‘চিড়’ নিয়ে বিস্ফোরক মমতা

  • মমতা বৃহস্পতিবার বলেন, ‘আজকালকার মিডিয়া শুধু তৃণমূলের গন্ধ পেতে ব্যস্ত। ভালোটা চোখে দেখতে পায় না। সারাক্ষণ কুটুস কুটুস। এর সাথে ওর লাগাচ্ছে, এর সাথে আমার লাগাচ্ছে। শতাব্দীর সঙ্গে কেষ্টকে লাগাচ্ছে, আমার সঙ্গে অভিষেকের লাগাচ্ছে। এরা এটাই বোঝে না যে এটা হওয়ার নয়। এতে টিআরপি বাড়বে না।’

একাধিক সময়ে বিরোধী দলের তরফে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বনাম অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দ্বন্দ্ব নিয়ে জল্পনা উসকে দেওয়া হয়। এই নিয়ে এবার মুখ খুললেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবং তাঁর রোষ গিয়ে পড়ল সংবাদমাধ্যমের উপর। বৃহস্পতিবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে দলীয় সম্মেলনে বক্তৃতা রাখার সময় মমতা এই নিয়ে কড়া ভাষায় প্রতিক্রিয়া দেন। (আরও পড়ুন: গভীর নিম্নচাপের জেরে জেলায় জেলায় জারি সতর্কতা! বাংলার কোথায়, কবে বৃষ্টি?)

মমতা বৃহস্পতিবার বলেন, ‘আজকালকার মিডিয়া শুধু তৃণমূলের গন্ধ পেতে ব্যস্ত। ভালোটা চোখে দেখতে পায় না। সারাক্ষণ কুটুস কুটুস। এর সাথে ওর লাগাচ্ছে, এর সাথে আমার লাগাচ্ছে। শতাব্দীর সঙ্গে কেষ্টকে লাগাচ্ছে, আমার সঙ্গে অভিষেকের লাগাচ্ছে। এরা এটাই বোঝে না যে এটা হওয়ার নয়। এতে টিআরপি বাড়বে না।’

আরও পড়ুন: পুজোর আগে বড় ধাক্কা বাংলার সুরাপ্রেমীদের জন্য, বাড়ছে মদের দাম!

এদিকে বৃহস্পতিবার মমতা কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন। বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে কেন ডাকা হল না বাংলাকে? শেখ হাসিনা আমার সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলেন। এই প্রথমবার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বাংলাকে বাদ দেওয়া হল। চিন, শিকাগোতেও আমাকে যেতে দেওয়া হয়নি।’

তৃণমূল সুপ্রিমো আরও বলেন, ‘১০ কোটি টাকা করে দিয়ে ঝাড়খণ্ডের সরকার ফেলতে চেয়েছিল। আমরা বাঁচিয়ে দিলাম। এখন তো নীতীশজি আমাদের সঙ্গে, ওদিকে অখিলেশ আছে, হেমন্ত আছে। ২০২৪ সালে সব এক হয়ে যাব। এরপর ২০২৪-এ এমন খেলব না… খেলার নাম… কী বলে যেন ওটা… বাবাজি!’ এদিকে নিজের দলের নেতাদেরও সতর্ক করে দেন মমতা। এদিন তিনি বলেন, ‘অনেক কাউন্সিলরের নামে অভিযোগ পাচ্ছি। দল আপনাকে টিকিট দিয়েছে দল এবং মানুষের জন্য কাজ করতে, নিজের জন্য কাজ করতে না। যদি বেশি অভিযোগ আসে, একদিন সকালে উঠে দেখবেন নামটা ঘ্যাচাংফু হয়ে গিয়েছে।’

বন্ধ করুন