বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > BJP-র সঙ্গে হাত মিলিয়ে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির ব্যবস্থা করছেন মুখ্যমন্ত্রী
বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

BJP-র সঙ্গে হাত মিলিয়ে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির ব্যবস্থা করছেন মুখ্যমন্ত্রী

  • বিকাশবাবু বলেন, ‘রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে শাসকদলের কর্মীরা সিবিআইকে তদন্ত করতে বাধা দিচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী রাজ্য চালাতে ব্যর্থ হয়েছেন। তাই কেন্দ্রের সঙ্গে আঁতাত করে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির ব্যবস্থা করছেন।

কয়লাপাচারকাণ্ডে রাজ্যের মন্ত্রী মলয় ঘটকের ৮টি ঠিকানায় বুধবার অভিযান চালিয়েছে সিবিআই। মলয় ঘটকের আসানসোলের ঠিকানায় তল্লাশির সময় বাইরে সিবিআইয়ের বিরুদ্ধে হয়েছে বিক্ষোভ। আর তৃণমূলের এই বিক্ষোভ নিয়ে বিস্ফোরক দাবি করলেন রাজ্যসভায় বাম সাংসদ বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়ে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু করার ব্যবস্থা করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন বিকাশবাবু বলেন, ‘রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে শাসকদলের কর্মীরা সিবিআইকে তদন্ত করতে বাধা দিচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী রাজ্য চালাতে ব্যর্থ হয়েছেন। তাই কেন্দ্রের সঙ্গে আঁতাত করে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির ব্যবস্থা করছেন। নইলে এভাবে ইডি - সিবিআইকে বাধা দিতেন না।’

পরীক্ষা বাড়িয়ে দিচ্ছে মানসিক সমস্যা! পড়ুয়াদের নিয়ে জানালো সমীক্ষা

রাজ্য সরকারের অত্যন্ত কঠোর সমালোচক বিকাশবাবু। রাজ্যের বিরুদ্ধে হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্টে দায়ের একাধিক মামলার প্রধান আইনজীবী তিনি। ইতিমধ্যে একাধিকবার বিকাশবাবুকে নাম করে সমালোচনা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এমনকী তাঁর জন্য নতুন নিয়োগপ্রক্রিয়া শুরু করতে পারছেন না বলেও অভিযোগ করেছেন। যদিও তাতে ভ্রুক্ষেপ নেই বিকাশরঞ্জনের। তাঁর স্পষ্ট কথা, দুর্নীতির বিরুদ্ধে আদালতে তাঁর লড়াই জারি থাকবে।

এর আগে নারদকাণ্ডে ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়দের গ্রেফতারির সময় নিজাম প্যালেসে হাজির হয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু নিজের মন্ত্রীদের ছাড়িয়ে নিয়ে যেতে পারেননি তিনি। উলটে ফিরহাদদের গায়ে প্রভাবশালী তকমা লেগে যাওয়ায় জামিন পেতে কালঘাম ছুটেছিল।

বলে রাখি, আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর মলয়বাবুকে দিল্লিতে তলব করেছে ইডি।

 

বন্ধ করুন