বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ১১ বছর ধরে প্রতিহিংসার চরম করেছেন উনি, মমতাকে পালটা বিকাশরঞ্জনের

১১ বছর ধরে প্রতিহিংসার চরম করেছেন উনি, মমতাকে পালটা বিকাশরঞ্জনের

বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

মমতার মন্তব্যকে আদ্যন্ত মিথ্যা বলে উল্লেখ করে বিকাশবাবু বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতায় এসে দিনের পর দিন সুশান্ত ঘোষকে অকারণে জেলে ভরে রেখেছিলেন। আদালতে তা প্রমাণ হয়েছে।

প্রতিহিংসা পরায়ণ নন বলে ক্ষমতায় এসে বাম নেতাদের জেলে পোরেননি তিনি। রবিবার তৃণমূলের মুখপত্রের এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই দাবির তীব্র সমালোচনা করলেন রাজ্যসভার বাম সাংসদ বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। রবিবার সন্ধ্যায় হিন্দুস্তান টাইমসকে তিনি বলেন, ‘ওনার মতো অত্যাচারী পৃথিবীতে খুব কম আছে। ১১ বছরে বামপন্থীদের ওপর প্রতিহিংসার চরম করেছেন উনি।’

এদিন মমতার মন্তব্যকে আদ্যন্ত মিথ্যা বলে উল্লেখ করে বিকাশবাবু বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতায় এসে দিনের পর দিন সুশান্ত ঘোষকে অকারণে জেলে ভরে রেখেছিলেন। আদালতে তা প্রমাণ হয়েছে। গ্রামে গঞ্জে বামপন্থীদের ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দিয়েছে ওনার দলের গুন্ডারা। এক রাতে সিপিএমের কয়েক শো পার্টি অফিস ভেঙেছেন। মা বোনেদের বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেছে তৃণমূলি দুষ্কৃতীরা। উনি আবার তাদের সমর্থন করেছেন। শেষে জরিমানা দিয়ে মানুষকে ঘরে ফিরতে হয়েছে। ওনার মতো অত্যাচারী পৃথিবীতে খুব কম আছে। গত ১১ বছরে প্রতিহিংসার চূড়ান্ত করেছেন উনি।’

এদিন দলীয় মুখপত্রের শারদসংখ্যা প্রকাশ করে মমতা দাবি করে, তাঁর দলের মুখপত্র সরকারি বিজ্ঞাপন নেয় না। কিন্তু সিপিএমের মুখপত্র চিটফান্ডের বিজ্ঞাপন ছাপে। তবে তাঁর দলের মুখপত্রও যে চিটফান্ডের বিজ্ঞাপন নিত তা স্বীকার করে নেন তৃণমূলনেত্রী।

 

বন্ধ করুন