বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > সেতু দুর্ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীকে জড়াতে চান না মমতা, এড়ালেন সাংবাদিকের প্রশ্ন

সেতু দুর্ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীকে জড়াতে চান না মমতা, এড়ালেন সাংবাদিকের প্রশ্ন

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

মমতার অভিযোগ, ‘নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত থাকায় এই দুর্ঘটনায় মৃতদের পরিবারের সঙ্গে সঠিক আচরণ করেনি গুজরাত সরকার। আমাদের এখানেও একটা দেহ এসেছে। সে যেন ভিখারির মতো করে দেহটা পাঠিয়েছে।’

গুজরাতের মৌরবিতে সেতু বিপর্যয়ের তদন্তে সুপ্রিম কোর্টের নজরদারিতে তদন্ত কমিটি গঠনের দাবি জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার দুপুরে চেন্নাই উড়ে যাওয়ার আগে দমদম নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এই দাবি জানান তিনি। তবে এই দুর্ঘটনার জন্য প্রধানমন্ত্রী মোদীর কোনও দায় রয়েছে কি না তা নিয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকার করেন তিনি।

এদিন মমতা বলেন, ‘সরকার তো আর দুর্ঘটনা ঘটায় না। দুর্ঘটনা ঘটে যায়। সেজন্য কাউকে কাজের দায়িত্ব দেওয়ার আগে আমাদের তার অভিজ্ঞতা খতিয়ে দেখা উচিত।’ মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, ‘এই ঘটনাস সুপ্রিম কোর্টের নজরদারিতে তদন্তকমিটি গঠন করা উচিত। জগগণের প্রাণ রাজনীতির থেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। নিহতদের পরিবারকে আমি সমবেদনা জানাই।’

‘‌চাকরি দিতে পারেন কেবল মা জগদ্ধাত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়’‌, মন্তব্য মিত্র মদনের

মমতার অভিযোগ, ‘নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত থাকায় এই দুর্ঘটনায় মৃতদের পরিবারের সঙ্গে সঠিক আচরণ করেনি গুজরাত সরকার। আমাদের এখানেও একটা দেহ এসেছে। সে যেন ভিখারির মতো করে দেহটা পাঠিয়েছে।’

মমতার প্রশ্ন, ‘কী ভাবে টেন্ডার হয়েছে তা কেন ইডি - সিবিআই খতিয়ে দেখছে না? ইডি - সিবিআই কেন শুধু সাধারণ মানুষকে বিব্রত করছে? যারা মানুষের প্রাণ নিয়ে খেলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয় না।’

এর পর সাংবাদিকের প্রশ্ন এড়িয়ে মমতা বলেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কোনও কথা বলব না। কারণ এটা তাঁর রাজ্যে হয়েছে।’

রাজ্যপাল লা গণেশনের ব্যক্তিগত আমন্ত্রণে বুধবার চেন্নাই উড়ে যাচ্ছেন মমতা। সেখানে ডিএমকে নেতা স্তালিনের সঙ্গেও তাঁর দেখা করার কথা রয়েছে। এদিন স্তালিনকে নিজের রাজনৈতিক বন্ধু বলে উল্লেখ করেন মমতা। বৃহস্পতিবার কলকাতায় ফিরবেন তিনি।

 

বন্ধ করুন