মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি (PTI)
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি (PTI)

দিল্লির হিংসায় অত্যন্ত উদ্বিগ্ন, ভারতে হিংসার স্থান নেই: মমতা

  • রবিবার উত্তর – পূর্ব দিল্লিতে CAA বিরোধী আন্দোলন থেকে হিংসা ছড়ায়। সেই আগুনে মঙ্গলবারও পুড়েছে রাজধানী। ইট বৃষ্টি, অগ্নি সংযোগ, ভাঙচুর, গুলি কিছুই বাদ যাচ্ছে না।

দিল্লি হিংসা নিয়ে সবাইকে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান করলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার ইস্টার্ন জোনাল কাউন্সিলের বৈঠকে যোগ দিতে ভুবনেশ্বরে উড়ে যাওয়ার আগে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে একথা বলেন তিনি। মমতা বলেন, ‘আমাদের দেশে হিংসার কোনও স্থান নেই।’

এদিন কলকাতা ছাড়ার আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাংবাদিকদের বলেন, ‘দিল্লিতে যা হচ্ছে, তাতে আমরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। আমরা সব দেখছি। আমাদের দেশে হিংসার কোনও জায়গা নেই। আমরা সবাই শান্তি চাই। আমরা সবাইকে শান্তি বজায় রাখার আবেদন জানাচ্ছি।’

রবিবার উত্তর – পূর্ব দিল্লিতে CAA বিরোধী আন্দোলন থেকে হিংসা ছড়ায়। সেই আগুনে মঙ্গলবারও পুড়েছে রাজধানী। ইট বৃষ্টি, অগ্নি সংযোগ, ভাঙচুর, গুলি কিছুই বাদ যাচ্ছে না। লাগাতার হিংসায় এখনো পর্যন্ত ১ পুলিশকর্মী-সহ ১০ জন নিহত হয়েছেন। হিংসার ২০০-র কাছাকাছি মানুষ আহত হয়েছেন।

পশ্চিমবঙ্গে শান্তি বজায় রাখতে ইতিমধ্যে কলকাতা-সহ সমস্ত জেলায় নির্দেশিকা পাঠিয়েছে নবান্ন। তাতে সমস্ত ডেপুটি কমিশনারকে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে বলা হয়েছে। বাড়াতে বলা হয়েছে টহলদারি।

CAA পাশ হওয়ার পর বেশ কয়েকদিন হিংসায় পুড়েছিল দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন এলাকা। কার্যত অবাধে ট্রেনে ও স্টেশনে আগুন দিয়েছিল তাণ্ডবকারীরা। তখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে পুলিশকে নিষ্ক্রিয় করে রাখার অভিযোগ করেছিল বিরোধীরা। এখন দিল্লি হিংসায় সেই একই অভিযোগ অমিত শাহের বিরুদ্ধে করছে আম আদমি পার্টি।


বন্ধ করুন