বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > হেরিটেজ দুর্গাপুজোর অনুষ্ঠানে ডাক পেলেন না মমতারা! শাহের পাশে থাকবেন শুধু ধনখড়
কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি)

হেরিটেজ দুর্গাপুজোর অনুষ্ঠানে ডাক পেলেন না মমতারা! শাহের পাশে থাকবেন শুধু ধনখড়

  • আগামিকাল (শুক্রবার) ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে দুর্গাপুজো নিয়ে অনুষ্ঠান আছে। গত বছর ইউনেসকোর তরফে দুর্গাপুজোকে হেরিটেজ তকমা দেওয়া হয়।বিশ্বমঞ্চে দুর্গাপুজোকে স্বীকৃতি দেওয়ায় শুক্রবার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে কেন্দ্রের তরফে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। সূত্রের খবর, সেখানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের কোনও প্রতিনিধি ডাক পাননি। অমিত শাহের সঙ্গে থাকবেন জগদীপ ধনখড়।

কলকাতার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে দুর্গাপুজো নিয়ে অনুষ্ঠান কেন্দ্রের। সূত্রের খবর, অথচ সেই অনুষ্ঠানে ডাক পাননি রাজ্য সরকারের কোনও প্রতিনিধি। আমন্ত্রণ জানানো হয়নি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। রাজ্যের তরফে থাকবেন শুধুমাত্র জগদীপ ধনখড়। যা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্ন মহলে।

গত বছর ইউনেসকোর তরফে দুর্গাপুজোকে হেরিটেজ তকমা দেওয়া হয়।বিশ্বমঞ্চে দুর্গাপুজোকে স্বীকৃতি দেওয়ায় শুক্রবার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে কেন্দ্রের তরফে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। সূত্রের খবর, যে পশ্চিমবঙ্গের প্রধান উৎসব দুর্গাপুজো, সেই রাজ্যের কোনও প্রতিনিধিকেই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। রাজ্যের একমাত্র প্রতিনিধি হিসেবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে থাকবেন ধনখড়। অথচ মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।

আরও পড়ুন: পিছিয়ে গেল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সফর, বাংলায় থাকবেন কদিন?

সেই ঘটনা নিয়ে স্বভাবতই বিতর্ক তৈরি হয়েছে। পুরো বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে রাজনীতি করার অভিযোগ উঠেছে। ফোরাম ফর দুর্গোৎসবের তরফে রীতিমতো বিস্ময় করা হয়েছে। দুর্গাপুজোর সংগঠনের বক্তব্য, মুখ্যমন্ত্রীর প্রচেষ্টা ছাড়া ইউনেসকোর স্বীকৃতি মিলত না। অথচ তাঁকেই আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। সেইসঙ্গে কোনও পুজো কমিটির সদস্যকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি বলে জানিয়েছে ফোরাম ফর দুর্গোৎসব। বাঙালিকে অপমান করা হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে।

যদিও বিষয়টিতে পাত্তা দিতে রাজি নন বিজেপির সর্বভারতীয় সব-সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বৃহস্পতিবার নিউ টাউনের ইকোপার্কে তিনি বলেন, ‘আমি জানি না, ভিক্টোরিয়াতে কী সরকারি অনুষ্ঠান আছে। আমায় নেমতন্ন করা হয়নি। কিন্তু যাঁরা নেমতন্ন পাননি বলে হাহাকার করছেন, গতবার প্রধানমন্ত্রীর সামনে মুখ্যমন্ত্রীর থাকার সময় কেউ জয় শ্রীরাম বলায় তাঁর (নাকি) অপমান হয়েছিল। এখন এই ধরনের অপমান হতে কেন যেতে চাইছেন তাঁরা? ডাক পাওয়া চাই। আবার অপমানিত বোধ করেন। না পেলে কষ্ট হয়। পেলে হজম হয় না।’

আরও পড়ুন: Coochbehar: বন্ধ স্কুলের মাঠে বোমা উদ্ধার, তিনবিঘায় যাওয়ার কথা ছিল অমিত শাহের

রাজনৈতিক মহলের একাংশের অবশ্য বক্তব্য, এখনও সময় আছে আমন্ত্রণ জানানোর। আজ (বৃহস্পতিবার) রাজ্যে আসছেন শাহ। তারপর আগামিকাল সন্ধ্যায় অনুষ্ঠান আছে। সেইসময়ের মধ্যে আমন্ত্রণ যায় কিনা, সেদিকে নজর আছে রাজনৈতিক মহলের।

বন্ধ করুন