ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

হেরোদের ঘুরপথে রাজ্যসভায় পাঠানোর চেষ্টা করছেন মমতা: দিলীপ ঘোষ

  • রবিবার রাজ্যসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ৪ প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তালিকায় রয়েছে, মৌসম বেনজির নুর, অর্পিতা ঘোষ, দীনেশ ত্রিবেদী ও সুব্রত বক্সি।

মানুষ যাদের প্রত্যাখ্যান করেছে তাদেরই রাজ্যসভায় প্রার্থী করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূলের প্রার্থী বাছাইকে এভাবেই কটাক্ষ করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

রবিবার বিজেপির ‘আর নয় অন্যায়’ কর্মসূচির অধীনে এক সাংবাদিক বৈঠকে দিলীপবাবু বলেন, তৃণমূলের ৪ জন প্রার্থীর মধ্যে তিন জন লোকসভা নির্বাচনে পরাজিত হয়েছেন। মানুষ তাদের প্রত্যাখ্যান করেছেন। তাদেরই রাজ্যসভার প্রার্থী হিসাবে বেছেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রবিবার রাজ্যসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ৪ প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তালিকায় রয়েছে, মৌসম বেনজির নুর, অর্পিতা ঘোষ, দীনেশ ত্রিবেদী ও সুব্রত বক্সি। এর মধ্যে সুব্রত বক্সি গত লোকসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করেননি। তাঁর দক্ষিণ কলকাতা আসনে প্রার্থী হয়ে ভোটে জিতেছেন মালা রায়। এছাড়া তৃণমূলের বাকি ৩ জন রাজ্যসভার প্রার্থী লোকসভা নির্বাচনে পরাজিত হয়েছেন।

এর মধ্যে বালুরঘাটে বিজেপি প্রার্থী সুব্রত মজুমদারের কাছে প্রায় ৩২,০০০ ভোটে হেরেছেন ওই কেন্দ্রেরই প্রাক্তন সাংসদ অর্পিতা ঘোষ। মালদা উত্তর কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী খগেন মুর্মুর কাছে ৮০,০০০-এর বেশি ভোটে হেরেছেন কোতয়ালির মেয়ে মৌসম বেনজির নুর। ভোটের মুখে দল বদলেছিলেন মৌসম। পারিবারিক ঐতিহ্য কংগ্রেস ছেড়ে যোগ দিয়েছিলেন তৃণমূলে। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি।

বারাকপুরের লড়াই ছিল জমজমাট। সেখানে তৃণমূলে টিকিট না পেয়ে বিজেপিতে যোগ দেন তিনি। সেখানে বিদায়ী সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদীকেই টিকিট দেয় তৃণমূল। তাঁকে প্রায় ১৫,০০০ ভোটে হারান অর্জুন।


বন্ধ করুন