বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > তৃণমূল হেরে গেছে, সরকারের কাঠামোটা আছে, সরকার বলে কিছু নেই: দিলীপ ঘোষ
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি

তৃণমূল হেরে গেছে, সরকারের কাঠামোটা আছে, সরকার বলে কিছু নেই: দিলীপ ঘোষ

  • ওরা যদি মনে করেন গুন্ডা দিয়ে আর পুলিশ দিয়ে ক্ষমতায় টিকে থাকবেন তাহলে ভুল করছেন।

পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের বাকি এখনো প্রায় ৯ মাস। এখনই তৃণমূল কংগ্রেস সরকার নৈতিক দিক দিয়ে হেরে গিয়েছে বলে দাবি করলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বৃহস্পতিবার সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘সরকারের শুধু কাঠামোটা আছে। সরকার বলে কিছু নেই।’ বনগাঁয় বিজেপি নেতার ওপর হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে একথা বলেন তিনি।

এদিন দিলীপবাবু বলেন, ‘বনগাঁয় তৃণমূলের মারে এক বিজেপি নেতা গুরুতর জখম হয়েছেন। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন তিনি। করোনা আক্রান্তদের বাঁচাতে পারছে না সরকার। সুস্থ মানুষদের গুন্ডা দিয়ে পেটানো হচ্ছে। পুলিশ দিয়ে অত্যাচার করা হচ্ছে।’

সুর চড়িয়ে দিলীপবাবু বলেন, ‘এই অমানবিক, নৃশংস, স্বৈরাচারী সরকার বিরোধীদের সঙ্গে যে ব্যবহার করছে, বিশেষ করে বিজেপির সঙ্গে, তাতে বোঝা যাচ্ছে তাঁরা নৈতিক ভাবে হেরে গিয়েছে। সরকারের খালি কাঠামোটা আছে, সরকার বলে কিছু নেই। যত দিন যাচ্ছে মানুষ এদের বিরুদ্ধে চলে যাচ্ছে। তাই হতাশ হয়ে আমাদের কর্মীদের ওপর রোজ হামলা করছে তৃণমূল। ওরা যদি মনে করেন গুন্ডা দিয়ে আর পুলিশ দিয়ে ক্ষমতায় টিকে থাকবেন তাহলে ভুল করছেন।‘

বৃহস্পতিবার দুপুরে বনগাঁর বিএসএফ মোড়ের কাছে ব্যাপক মারধর করা হয় সুতনু হালদার নামে এক স্থানীয় বিজেপি নেতাকে। রড – লাঠি দিয়ে তৃণমূল আশ্রিত গুন্ডারা তাঁকে মারধর করে বলে অভিযোগ। গুরুতর আহত সুতনুবাবুকে বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে গেলে জানা যায়, মারের চোটে ২টি হাত ও ১টি পা ভেঙেছে তার। তাঁকে বারাসতের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

 

বন্ধ করুন