বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > ডিম-ভাতের লোভ দেখিয়ে লাভ নেই, পরের বছর ২১ জুলাই ২১ জন লোক জোগাড় হবে না মমতার
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

ডিম-ভাতের লোভ দেখিয়ে লাভ নেই, পরের বছর ২১ জুলাই ২১ জন লোক জোগাড় হবে না মমতার

  • দিলীপবাবুর দাবি, পশ্চিমবঙ্গে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ক্ষমতা থেকে যাওয়া পাকা। তাই পরের বছর আর মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে ভাষণ দিতে পারবেন না মমতা।

তৃণমূলের ২১ জুলাইয়ের ভার্চুয়াল সমাবেশকে তীব্র কটাক্ষ করলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। মঙ্গলবার বিজেপির রাজ্য সদর দফতরে এক সাংবাদিক বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে লক্ষ্য করে তীব্র আক্রমণ শানান তিনি। বলেন, আগামী বছপ ২১ জুলাই ২১ জন লোক জোগাড় করতে পারবেন না মমতা।

দিলীপবাবুর দাবি, পশ্চিমবঙ্গে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ক্ষমতা থেকে যাওয়া পাকা। তাই পরের বছর আর মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে ভাষণ দিতে পারবেন না মমতা। কারণ, বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হবে এপ্রিল ও মে-তে। মে-র মাঝামাঝি বেরোবে ফল। তাতেই বিদায় ঘটবে মমতা জমানার। এমনই দাবি দিলীপের। 

মমতাকে দিলীপবাবুর কটাক্ষ, ‘উনি আগামী বছর মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে ভাষণ দিতে পারবেন না। সরকারের কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে এই সভা করতে হবে। অনুমতি আমরাই দেব। আটকাবো না। কোর্টে যেতে হবে না।‘ 

এর পর দিলীপ ঘোষ বলেন,  ‘সেই ২১ জুলাই ২১ জন লোক ওনার ভাষণ শোনার জন্য পাবেন না। ওনাকে রাস্তার পাশে পথসভা করতে হবে। রাস্তার ওপর জনসভা ওনার আর করা হবে না।‘

লোকসভা নির্বাচনে বিপুল জয়ের পর পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতা দখল এখন সময়ের অপেক্ষা বলে মনে করছে বিজেপি। মাঠে ময়দানে সমানে টক্কর দিচ্ছে তৃণমূলকে। একদিকে করোনা, অন্যদিকে পড়তি জনসমর্থন। দুয়ের মারে বসে গিয়েছেন তৃণমূলের বেশ কিছু কর্মী। তাদের চাঙ্গা করতে আজ ভোকাল টনিক দেন মমতা। 

 

বন্ধ করুন