রাজভবনে একান্ত বৈঠকে নরেন্দ্র মোদী ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি প্রধানমন্ত্রীর দফতরের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে সংগৃহীত।ফাইল ছবি
রাজভবনে একান্ত বৈঠকে নরেন্দ্র মোদী ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি প্রধানমন্ত্রীর দফতরের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে সংগৃহীত।ফাইল ছবি

রাজ্যের জন্য ৫০ হাজার কোটি চেয়ে মোদীকে চিঠি মমতার

যাবতীয় প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও রাজ্যের আর্থিক বৃদ্ধির হার চাঙ্গা, মনে করিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

রাজ্যের জন্য ৫০,০০০ কোটি টাকা চেয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদীকে চিঠি পাঠালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই সঙ্গে কেন্দ্রীয় তথবিল থেকে রাজ্যের খাতে অর্থ হ্রাস পাচ্ছে ও টাকা আসতে দেরি হচ্ছে, এই অভিযোগ তুলে উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি।

টাকা আসতে দেরি হওয়ায় মানুষের প্রতি নিজেদের দায়বদ্ধতা পূর্ণ করার ক্ষেত্রে অত্যন্ত সমস্যা হচ্ছে বলেও মোদীকে চিঠিতে লিখেছেন মমতা। এই পরিস্থিতিকে অভূতপূর্ব বলেও দাবি করেছেন মমতা। জিএসটি ক্ষতিপূরণ খাতে রাজ্যের টাকা পেতে বহু দেরি হওয়ায় রাজস্ব দফতর বিপাকে পড়ছে বলেও জানান মুখ্যমন্ত্রী।

উদাহরণ স্বরূপ তিনি বলেন যে গত বছরের অক্টোবর-নভেম্বর মাসের টাকা চলতি মাসে এসেছে। বিভিন্ন কেন্দ্রীয় প্রকল্প খাতে ৩৬,০০০ কোটি ও কেন্দ্রের থেকে রাজ্যের প্রাপ্য ১১০০০ কোটি অদেয় আছে বলেও চিঠিতে উল্লেখ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

মমতার কথায় বাম আমলে পুঞ্জীভূত ঋণের সুদ ও আসল বাবদ এখনও পর্যন্ত তিন লক্ষ কোটি টাকা মিটিয়েছে রাজ্য। তবে এসবের পরেও ২০১৯-২০ সালে পশ্চিমবঙ্গের জিডিপি বৃদ্ধির হার ১০ শতাংশ, যা দেশের বৃদ্ধির হারের দ্বিগুণ।

রাজ্য যাতে এই উন্নয়নের পথে চলতে পারে তার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে আর্থিক সাহায্য চেয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।



বন্ধ করুন