ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

করোনা পরীক্ষার আগেই উপসর্গ নিয়ে বাঙুরে মৃত প্রৌঢ়, ধন্দে স্বাস্থ্যকর্তারা

  • বুধবার ভোরে এমআর বাঙুর হাসপাতালের আইসোলেশনে মৃত্যু হয় হাওড়ার বাসিন্দা ওই ব্যক্তির।

করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহে আইসোলেশন ওয়ার্ডে থাকা ব্যক্তির মৃত্যুতে ধন্দে স্বাস্থ্য দফতর। বুধবার ওই ব্যক্তির লালারসের নমুনা পরীক্ষায় পাঠানোর কথা ছিল। তার আগেই ভোর রাতে বাঙুর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে মৃত্যু হয় ৫৪ বছর বয়সী ওই প্রৌঢ়ের। ফলে দেহের সৎকার কীভাবে করা হবে তা নিয়ে মহা বিপাকে পড়েছেন স্বাস্থ্যকর্তারা। সঙ্গে হাসপাতালও মৃতের পাড়ায় ছড়িয়েছে সংক্রমণের আতঙ্ক।

বুধবার ভোরে এমআর বাঙুর হাসপাতালের আইসোলেশনে মৃত্যু হয় হাওড়ার বাসিন্দা ওই ব্যক্তির। এর পরই বিভ্রান্তিতে পড়েন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য কর্তারা। মঙ্গলবার ওই ব্যক্তির করোনা পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহের কথা ছিল। তার আগেই তাঁর মৃত্যু হওয়ায় তিনি করোনায় আক্রান্ত কি না তা কোনওভাবে নিশ্চিত হওয়া সম্ভব নয়।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি পুরী বেড়াতে গিয়েছিলেন ওই ব্যক্তি। সেখান থেকে ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। এর পর তাঁকে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। করোনার উপসর্গ থাকায় সেখান থেকে তাঁকে পাঠানো হয় এমআর বাঙুর হাসপাতালের আইসোলেশনে। সেখানে তাঁর মৃত্যু হয়।

ঘটনায় প্রৌঢ়ের পাড়ায় ও হাসপাতালে সংক্রমণের আতঙ্ক ছড়িয়েছে। প্রৌঢ়ের প্রতিবেশীরা অমিলম্বে তাঁর সমস্ত স্বজনকে কোয়ারেনটাইনে পাঠানোর দাবি তুলেছেন। হাসপাতালের রোগীদের আশঙ্কা, সংক্রমিত হতে পারেন তাঁরাও।



বন্ধ করুন