বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > নিজেই সোনা লুট করে পুলিশে অভিযোগ ব্যক্তির! তদন্তে ফাঁস হল আসল সত্যি
সোনার বিস্কিট (প্রতীকী ছবি)

নিজেই সোনা লুট করে পুলিশে অভিযোগ ব্যক্তির! তদন্তে ফাঁস হল আসল সত্যি

  • সোমবার রাতে নীতীশ মাথায় আঘাত নিয়ে গিরীশ পার্ক থানায় পৌঁছান। তিনি অভিযোগ করেন, তাঁর থেকে সাতটি সোনার বার লুট করেছে দুষ্কৃতীরা। 

মাথায় লেগেছিল চোট। সেই আঘাত নিয়েই সোনা লুটের অভিযোগ জানাতে থানায় হাজির এক ব্যক্তি। পরে জানা যায়, অভিযোগকারী নিজেই সোনা লুট করেছেন। তাঁর সঙ্গী ছিলেন তাঁরই ভাই। এই আবহে দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, ধৃতদের নাম নীতীশ রায় এবং নীতিন রায়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাতে নীতীশ মাথায় আঘাত নিয়ে গিরীশ পার্ক থানায় পৌঁছান। তিনি অভিযোগ করেন, তাঁর থেকে সাতটি সোনার বার লুট করেছে দুষ্কৃতীরা। নীতীশ দাবি করেন, তাঁর মালিক ওড়িশায় থাকেন। তিনি বাংলায় তাঁর ব্যবসা দেখভাল করেন। অভিযোগ পেয়ে নীতীশকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে পুলিশ। তবে নীতীশের বক্তব্যে অসঙ্গতি ধরা পড়ে। তাতে সন্দেহ হয় পুলিশের।

পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়ে যেতে থাকলে সত্যিটা ফাঁস হয়। পুলিশ জানতে পারে নীতীশ ও তাঁর ভাই নীতিন সোনা লুট করেছেন। নিজেদের দিকে অভিযোগের আঙুল যাতে না ওঠে, সে কারণেই লুটের গল্প বানিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন তাঁরা। এরপরই গ্রেফতার করা হয় নীতীশ ও তাঁর ভাইকে। ধৃতদের বাড়ি দমদমের নয়াপট্টি এলাকায়। তল্লাশি চালিয়ে উল্টোডাঙা রেল কলোনির কাছ থেকে লুট হওয়া সোনাও উদ্ধার করেছে পুলিশ। উদ্ধার হওয়া সাতটি সোনার বারের মধ্যে একটির ওজন ৭৪৩ গ্রাম। বাকিগুলির ওজন ১১৬ গ্রাম।

বন্ধ করুন