বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Manik Bhattacharya: কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ মানিক ভট্টাচার্যের, গেলেন সুপ্রিম কোর্টে
মানিক ভট্টাচার্য।

Manik Bhattacharya: কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ মানিক ভট্টাচার্যের, গেলেন সুপ্রিম কোর্টে

  • আবার এই মানিক ভট্টাচার্যকে মাঝে খুঁজে পাচ্ছিল না তদন্তকারী অফিসাররা। তাই তাঁরা আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। এমনকী সিবিআই তাঁর নামে লুকআউট নোটিশ জারি করে। তখন তিনি নিজে কলকাতার বাড়ির বারান্দা থেকে জানিয়েছিলেন, তিনি পালিয়ে যাননি। এখানেই আছেন। এখন দেখার সুপ্রিম কোর্টে স্বস্তি পান কিনা মানিক।

কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে এবার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হলেন মানিক ভট্টাচার্য। গত ১৫ সেপ্টেম্বর সুপ্রিম কোর্টে স্পেশাল লিভ পিটিশন দায়ের করেন প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের প্রাক্তন সভাপতি মানিক ভট্টাচার্য। প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের একক বেঞ্চ এবং পরে ডিভিশন বেঞ্চ যে নির্দেশ দিয়েছিল সেটাকেই চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছেন মানিকবাবু। আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর সুপ্রিম কোর্টে মামলাটি শুনানির জন্য উঠতে পারে।

বিষয়টি ঠিক কী ঘটেছে?‌ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় প্রাক্তন চেয়ারম্যান তথা পলাশিপাড়ার তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক মানিক ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। এমনকী চেয়ারম্যান পদ থেকে মানিককে সরানো এবং তাঁর–সহ পরিবারের সদস্যদের সম্পত্তির খতিয়ান হলফনামা আকারে জমা দিতে বলা হয়েছিল। সিঙ্গল বেঞ্চের এই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে বিচারপতি ডিভিশন বেঞ্চে যান মানিকবাবু। কিন্তু ডিভিশন বেঞ্চ সিঙ্গল বেঞ্চের রায় বহাল রাখায় সর্বোচ্চ আদালতে গেলেন মানিক ভট্টাচার্য।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ স্কুল শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিতে নাম জড়িয়েছে মানিক ভট্টাচার্যের। তাঁকে জেরা করেছে ইডি। আর সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। আর তাঁকে অপসারণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। যদিও তা এখন আর কার্যকর নয়। কারণ রাজ্য সরকার তাঁকে প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছে। আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর মামলাটির শুনানি হবে সুপ্রিম কোর্টে। সর্বোচ্চ আদালত নির্দেশ দিয়েছে, এই মামলায় সব পক্ষকে নোটিশ দিতে হবে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি মানিক ভট্টাচার্য বিধানসভায় উপস্থিত হয়ে সাংবাদিকদের চিৎকার করে বলেছিলেন, ‘আই অ্যাম রক্তাক্ত বাই প্রেস!’ আবার এই মানিক ভট্টাচার্যকে মাঝে খুঁজে পাচ্ছিল না তদন্তকারী অফিসাররা। তাই তাঁরা আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। এমনকী সিবিআই তাঁর নামে লুকআউট নোটিশ জারি করে। তখন তিনি নিজে কলকাতার বাড়ির বারান্দা থেকে জানিয়েছিলেন, তিনি পালিয়ে যাননি। এখানেই আছেন। এখন দেখার সুপ্রিম কোর্টে স্বস্তি পান কিনা মানিক।

বন্ধ করুন