বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > চাঁদনি চকের কাপড়ের দোকানে বিধ্বংসী আগুন, ভস্মীভূত হয়েছে চারটি দোকান
নিউ মার্কেট এলাকার একটি কাপড়ের দোকানে আগুন লাগে।

চাঁদনি চকের কাপড়ের দোকানে বিধ্বংসী আগুন, ভস্মীভূত হয়েছে চারটি দোকান

  • আগুন নেভানোর কাজ করছের দমকল কর্মীরা। সেখানের দোকানগুলি খালি করার কাজও করা হচ্ছে। তবে এত ঘিঞ্জি বাজার এলাকা, আগুন ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকছেই। সবাইকে এখান থেকে সরে যেতে বলা হচ্ছে। বাসিন্দাদের সরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। আগুন নেভানোর সবরকম চেষ্টা করা হচ্ছে।

ভোরের কলকাতায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আতঙ্ক ছড়াল। নিউ মার্কেট এলাকার একটি কাপড়ের দোকানে আগুন লাগে। সেখান থেকে পাশের কয়েকটি দোকানও আগুন ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছয় যে, ওই দোকান ঘরগুলির ওপরের ফ্ল্যাট থেকে সরানো হয় বাসিন্দাদের। দমকলের ৫টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে এসেছে। তবে কী থেকে আগুন লাগল সেটা এখনও স্পষ্ট নয়।

ঠিক কী ঘটেছে চাঁদনি চকে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, আগুন ছড়িয়ে পড়েছে বলে খালি করে দেওয়া হয়েছে আশপাশের দোকানও। এটা ঘিঞ্জি এলাকা। তাই আগুন ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। আজ, শুক্রবার ভোর রাতে কাপড়ের দোকানে লাগে এই আগুন। তার জেরে পুড়ে গিয়েছে চারটি দোকান। হুলস্থূল পড়ে যায় এলাকায়। তাই সেখানে আসে দমকলের ৫টি ইঞ্জিন।

ঠিক কী বলছে দমকল?‌ দমকল সূত্রে খবর, শর্টসার্কিট থেকে এই আগুন লাগতে পারে। রাত তিনটে নাগাদ আগুন লেগেছিল বলে অনুমান করা হচ্ছে। প্রথমে একটি দোকানে আগুন লাগে। তা থেকেই কিছুক্ষণের মধ্যে সেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে আশেপাশের দোকানে। সেই আগুন দেখতে পেয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা রাস্তায় বেরিয়ে আসেন এবং দমকলে খবর দেন।

এখন কী পরিস্থিতি সেখানে?‌ আগুন নেভানোর কাজ করছের দমকল কর্মীরা। সেখানের দোকানগুলি খালি করার কাজও করা হচ্ছে। তবে এত ঘিঞ্জি বাজার এলাকা, আগুন ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকছেই। সবাইকে এখান থেকে সরে যেতে বলা হচ্ছে। বাসিন্দাদের সরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। আগুন নেভানোর সবরকম চেষ্টা করা হচ্ছে। ফায়ার পকেট তৈরি হয়েছে কিনা দেখা হচ্ছে। দ্রুত আগুন নিয়ন্ত্রণে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন