ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

সংক্রমণের আশঙ্কায় বন্ধ হয়ে গেল মেডিক্যাল কলেজের মেডিসিন বিভাগ

  • মঙ্গলবার দুপুরে এমসিএস বিল্ডিংয়ের তিন তলায় মেল ও ফিমেল মেডিসিন ওয়ার্ড বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় বন্ধ হয়ে গেল কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ড। সোমবার রাতে হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে করোনার উপসর্গ নিয়ে এক রোগীর মৃত্যু হয়। তিনি আগে মেডিসিন ও জরুরি বিভাগে ভর্তি ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। এর পরই আতঙ্ক ছড়ায় হাসপাতালের কর্মীদের মধ্যে। দুপুরে মেল ও ফিমেল মেডিসিন ওয়ার্ড বন্ধ করার কথা ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। জরুরি ওয়ার্ড বন্ধ করা হবে কি না তা নিয়ে এখনো আলোচনা চালাচ্ছেন ডাক্তারবাবুরা।

জানা গিয়েছে, এয়ারপোর্ট লাগোয়া চিনার পার্কের একটি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে মেডিক্যাল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয় বছর ৬২-র ওই বৃদ্ধাকে। করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় রবিবার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে হাসপাতালটি। পরিবারের দাবি, স্থানান্তরের সময় বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল ওই রোগীও করোনা আক্রান্ত। তার পরও কেন ওই বৃদ্ধাকে জরুরি বিভাগ বা মেডিসিন বিভাগে রাখা হল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

মঙ্গলবার দুপুরে এমসিএস বিল্ডিংয়ের তিন তলায় মেল ও ফিমেল মেডিসিন ওয়ার্ড বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ওই ভবনের বাকি কয়েকটি ওয়ার্ডও বন্ধ হতে পারে বলে খবর। বন্ধ হতে পারে জরুরি বিভাগও।

সংক্রমণের আশঙ্কায় সোমবারের পর মঙ্গলবারও মেডিক্যাল কলেজের মেডিক্যাল সুপারকে ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন নার্সরা। তাদের দাবি, সংক্রমণের ঝুঁকি থাকা সত্বেও PPE ছাড়াই রোগীদের সেবা করতে বাধ্য করা হচ্ছে তাঁদের।



বন্ধ করুন