বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাসভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে সরকার - মালিক বৈঠকে বেরলো না রফাসূত্র
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

বাসভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে সরকার - মালিক বৈঠকে বেরলো না রফাসূত্র

  • বৈঠক শেষে ফিরহাদ বলেন, ‘আমি আগে বাস রাস্তায় নামিয়ে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি লাঘব করতে বলেছি।

বাসভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে রাজ্য সরকারের সঙ্গে বাসমালিকদের বৈঠকে বেরলো না কোনও রফাসূত্র। নিজেদের দাবিতে অনড় রইল দুপক্ষই। রাজ্যের তরফে পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বৈঠকের পর জানিয়েছেন, আগে বাস পথে নামাতে হবে। তার পর ভাড়াবৃদ্ধি নিয়ে বিবেচনা করবে সরকার।

করোনা সংক্রমণ রোধে লাগু বিধিনিষেধ লঘু করে গত ১ জুলাই থেকে রাস্তায় বাস নামানোর অনুমতি দিয়েছে রাজ্য সরকার। কিন্তু তার পরও রাস্তায় দেখা মিলছে না বেসরকারি বাসের। মালিকদের দাবি, জ্বালানি তেল ও অন্যান্য সামগ্রীর দাম যে হারে বেড়েছে তাতে ভাড়া না বাড়ালে বাস চালানো সম্ভব নয়। কলকাতায় বাসভাড়া ন্যূনতম ১০ টাকা করার দাবি তুলেছেন তাঁরা।

এই নিয়ে আলোচনার জন্য সোমবার বৈঠক ডেকেছিলেন পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। সেখানে বাসমালিক সংগঠনগুলির প্রতিনিধিরা ছাড়াও হাজির ছিলেন বিধায়ক স্বর্ণকমল সাহা। বৈঠকে বাসমালিকদের পক্ষে ভাড়া না বাড়ালে বাস চালানো সম্ভব নয় বলে জানানো হয়। পালটা সরকারের পক্ষে পরিবহণ মন্ত্রী বলেন, আগে রাস্তায় বাস নামিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করুন। তার পর ভাবা হবে বাসভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে।

বৈঠক শেষে ফিরহাদ বলেন, ‘আমি আগে বাস রাস্তায় নামিয়ে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি লাঘব করতে বলেছি। বাসভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে যে বিশেষজ্ঞ কমিটি রয়েছে তার সুপারিশ নবান্নে জমা পড়েছে। সরকার তা খতিয়ে দেখে সময়মতো পদক্ষেপ করবে।’

সূত্রের খবর, সরকারের নির্দেশে মালিকরা রাস্তায় বাসের সংখ্যা বাড়াবেন এমন আশা কম। সেকথা জেনে বিকল্প রাস্তার সন্ধান করছে পরিবহণ দফতর। সেক্ষেত্রে বেসরকারি বাস ভাড়া নিয়ে চালাতে পারে সরকার।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এদিনের বৈঠকের পর পরিস্থিতি বদলের সম্ভাবনা খুবই কম। কারণ গত কয়েকদিন বাস চালিয়ে লোকসান হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাসমালিকরা। আরও বাস রাস্তায় নামালে তাদের লোকসান আরও বাড়বে। তাই সরকারের নির্দেশ তাঁরা শেষ পর্যন্ত মানবেন কি না তা লাখ টাকার প্রশ্ন।

 

বন্ধ করুন