বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > সংগঠন মজবুতই লক্ষ্য, মেঘালয়ের নেতারা আসছেন, বৈঠক অভিষেকের সঙ্গে কলকাতায়
কলকাতায় আসছেন সেখানকার তৃণমূল কংগ্রেস নেতারা। (ছবি, সৌজন্যে এএনআই)
কলকাতায় আসছেন সেখানকার তৃণমূল কংগ্রেস নেতারা। (ছবি, সৌজন্যে এএনআই)

সংগঠন মজবুতই লক্ষ্য, মেঘালয়ের নেতারা আসছেন, বৈঠক অভিষেকের সঙ্গে কলকাতায়

  • সম্প্রতি মেঘালয় সফরে গিয়েছিলেন বাংলার মন্ত্রী মানস ভুঁইয়া। মেঘালয়ের তৃণমূল কংগ্রেসের ইনচার্জ তিনি। তিনি বৈঠক করেন মেঘালয় তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে। এখানে এসে বৈঠক করে সেই মতো ওখানে কাজ হবে বলে খবর। মেঘালয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে কাজ করছে আইপ্যাক। 

মেঘালয় যাওয়ার কথা ছিল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সেটা এখন হচ্ছে না। পরিবর্তে তিনি অসম যাচ্ছেন। মেঘালয়ে তিনি পরে যাবেন। এই পরিস্থিতিতে সেই রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠনকে মজবুত করতে কলকাতায় আসছেন সেখানকার তৃণমূল কংগ্রেস নেতারা। এমনকী দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠক করবেন বলে জানিয়েছেন মেঘালয়ের তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি চার্লস পিনগ্রোপ।

বিষয়টি ঠিক কী ঘটতে চলেছে?‌ তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে খবর, এখন পাখির চোখ ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচন। তাই ত্রিপুরা, গোয়া, অসম, মেঘালয় রাজ্যের সংগঠন মজবুত করতে চাইছে জোড়াফুল শিবির। মেঘালয়ে ইতিমধ্যে ১২ জন বিধায়ক যোগ দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসে। সুতরাং মেঘালয়ে তৃণমূল কংগ্রেসই প্রধান বিরোধী দল। এই পরিস্থিতিতে দলের শীর্ষ নেতৃত্বের দিশা পেতে চাইছে মেঘালয়ের তৃণমূল কংগ্রেস নেতারা।

কেন কলকাতায় আসছেন মেঘালয়ের নেতারা?‌ এই বিষয়ে মেঘালয় তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি চার্লস পিনগ্রোপ সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‌দলীয় সংগঠনকে শক্তিশালী করার বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করতে মঙ্গলবার কলকাতায় যাচ্ছি। তারপর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বৈঠক হবে। কলকাতায় আসার কথা রয়েছে মুকুল সাংমার।’‌

উল্লেখ্য, সম্প্রতি মেঘালয় সফরে গিয়েছিলেন বাংলার মন্ত্রী মানস ভুঁইয়া। মেঘালয়ের তৃণমূল কংগ্রেসের ইনচার্জ তিনি। তিনি বৈঠক করেন মেঘালয় তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে। এখানে এসে বৈঠক করে সেই মতো ওখানে কাজ হবে বলে খবর। মেঘালয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে কাজ করছে আইপ্যাক। মেঘালয় তৃণমূল নেতৃত্বের বক্তব্য, দলের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে আইপ্যাকের বিষয়েও আলোচনা হবে।

বন্ধ করুন