বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > SSC Scam: আবার অসুস্থবোধ করছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়, বাড়িতে এলেন চিকিৎসকরা
পার্থ চট্টোপাধ্যায়। 

SSC Scam: আবার অসুস্থবোধ করছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়, বাড়িতে এলেন চিকিৎসকরা

  • শুক্রবার দুপুরে ইডি জেরার মুখে তিনি অসুস্থবোধ করেছিলেন। মেডিক্যাল টিম ডাকার অনুরোধ করেন তখন। তারপর তিনজন চিকিৎসককে তাঁর বাড়িতে প্রবেশ করতে দেখা গিয়েছিল। আজ, শনিবার সকালে ফের মন্ত্রী অসুস্থবোধ করছেন। শনিবার সকালে পার্থবাবু অসুস্থবোধ করতে থাকেন

কিছুদিন আগে নিজাম প্যালেসে সিবিআই–এর জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হয়েছিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সেখান থেকে হাসি মুখে বেরোলেও এবার চাপ বাড়ল তাঁর। কারণ শুক্রবার থেকে ইডি তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে শুরু করেছে। বাড়ি এসে রাতভর চলেছে জিজ্ঞাসাবাদ। ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও ইডি আধিকারিকদের বেরতে দেখা যায়নি মন্ত্রীর নাকতলার বাড়ি থেকে। শনিবার সকালে আবার অসুস্থবোধ করছেন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

ঠিক কী ঘটেছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের?‌ সূত্রের খবর, শুক্রবার দুপুরে ইডি জেরার মুখে তিনি অসুস্থবোধ করেছিলেন। মেডিক্যাল টিম ডাকার অনুরোধ করেন তখন। তারপর তিনজন চিকিৎসককে তাঁর বাড়িতে প্রবেশ করতে দেখা গিয়েছিল। আজ, শনিবার সকালে ফের মন্ত্রী অসুস্থবোধ করছেন। শনিবার সকালে পার্থবাবু অসুস্থবোধ করতে থাকেন বলে দাবি করেন তাঁর আইনজীবী অনিন্দ্যকিশোর রাউত।

তারপর ঠিক কী ঘটল?‌ মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় অসুস্থবোধ করতেই সকালেই চিকিৎসকদের খবর দেওয়া হয়। সকাল ৮টা নাগাদ নাকতলায় মন্ত্রীর বাড়িতে ঢুকতে দেখা যায় এক চিকিৎসককে। পরে জানা যায়, দু’জন চিকিৎসক মন্ত্রীর শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে তাঁর বাড়িতে এসেছেন। সূত্রের খবর, রাতে জিজ্ঞাসাবাদ চলাকালীন বেশ কয়েকবার ভেঙে পড়েছিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

এই ঘটনা নিয়ে টুইট করেছেন সিপিআইএমের রাজ্য সম্পাদক মহম্মদ সেলিমও। তিনি লেখেন, ‘যে টাকা উদ্ধার হয়েছে, তা হিমশৈলের চূড়া মাত্র। যথেষ্ট সময় অতিবাহিত করার পর, অজস্র টাকা দেশে–বিদেশে পাচার হওয়ার পরেও হাত দিতেই এই পরিমাণ টাকা পাওয়া যাচ্ছে। এই টাকা আসলে লুটের টাকা, তোলাবাজি–সহ অসহায় চাকরিপ্রার্থীদের থেকে মোটা ঘুষ নেওয়া টাকা সর্বত্র জমা করা হচ্ছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী টাকা বিলোবার গল্প শোনান আর দেশের প্রধানমন্ত্রী ক্যাশলেস ইকোনমির বাণী ছড়াচ্ছেন। সেই নগদ টাকার পাহাড়ের ছবিতে তৃণমূলের দুর্নীতির হাত ধরে ফুটে উঠছে এই রাজ্যে।’

বন্ধ করুন