বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > রাজনীতি থেকে স্বেচ্ছাবসর নিলে কেমন হয়? শুভ্রাংশু রায়ের পোস্ট ঘিরে শোরগোল
বিজেপি বিধায়ক শুভ্রাংশু রায়। ফাইল ছবি
বিজেপি বিধায়ক শুভ্রাংশু রায়। ফাইল ছবি

রাজনীতি থেকে স্বেচ্ছাবসর নিলে কেমন হয়? শুভ্রাংশু রায়ের পোস্ট ঘিরে শোরগোল

  • বিজেপিতে যোগ দিলেও এখনো কোনও পদ পাননি শুভ্রাংশু। যুব মোর্চার নেতৃত্বের তালিকাতেও নাম নেই তাঁর। কিছুটা হলেও বাবার ছায়ায় ঢাকা পড়ে যাচ্ছে তাঁর রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ।

রাজনীতি থেকে অবসর নিতে চান বিজেপির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায়ের ছেলে শুভ্রাংশু? বৃহস্পতিবার তাঁর এক ফেসবুক পোস্ট ঘিরে এমনই জল্পনা ছড়িয়েছে। ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রের খবর, বিজেপিতে তেমন গুরুত্ব পাচ্ছেন না শুভ্রাংশু। তাই আপাতত রাজনীতি থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা ভাবছেন তিনি।

এদিন ফেসবুকে শুভ্রাংশু লেখেন, ‘রাজনীতি থেকে স্বেচ্ছাবসর নিলে কেমন হয়? – শুভ্রাংশু রায়’ এর পরই শুরু হয় জল্পনা। তবে কি ফের তৃণমূলে যোগ দিতে পারেন শুভ্রাংশু? রাজনীতির কারবারিরা বলছেন, তেমন সম্ভাবনা নেই। বাবা বিজেপির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি। সেক্ষেত্রে ঘরের ছেলে বিদ্রোহ করলে রাজনৈতিক ক্ষতি হবে মুকুলের। তবে বিজেপির সঙ্গে দরকষাকষিতে নামতে চলেছেন তিনি।

|#+|

মুকুল রায় বিজেপিতে যোগদানের পরেও দীর্ঘদিন তৃণমূলেই ছিলেন শুভ্রাংশু। বীজপুরের বিধায়কের সঙ্গে তৃণমূলের সম্পর্ক কেমন ছিল তা অবশ্য লাখ টাকার প্রশ্ন। পরে বাবার হাত ধরেই বিজেপিতে যোগ দেন তিনি। শুভ্রাংশু ঘনিষ্ঠদের অভিযোগ, বিজেপিতে তেমন গুরুত্ব পান না শুভ্রাংশু রায়। দলের পুরনো নেতারা পদে পদে তাঁকে তাচ্ছিল্য করেন। তাতেই ক্ষুব্ধ তিনি।

বিজেপিতে যোগ দিলেও এখনো কোনও পদ পাননি শুভ্রাংশু। যুব মোর্চার নেতৃত্বের তালিকাতেও নাম নেই তাঁর। কিছুটা হলেও বাবার ছায়ায় ঢাকা পড়ে যাচ্ছে তাঁর রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ।

অনেকের মতে আবার শুভ্রাংশুর পোস্ট মুকুলের মস্তিষ্কপ্রসূত। তাঁদের দাবি, দর কষাকষি করে বিজেপির থেকে গুরুত্বপূর্ণ পদ হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি। এবার ছেলেকেও সেই পথেই চলার পরামর্শ দিয়েছেন মুকুল। কারণ বাবার অনুমতি না নিয়ে ছেলে পোস্ট করেছেন, একথা মানতে নারাজ অধিকাংশ সচেতন মানুষ।

 

 

বন্ধ করুন