বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বিজেপির বৈঠকে জাতীয় তফসিলি কমিশনের ভাইস চেয়ারম্যান, তুঙ্গে বিতর্ক
বিজেপির বৈঠকে অংশ নিলেন ন্যাশনাল এসসি কমিশনের ভাইস চেয়ারম্যান অরুণ হালদার।
বিজেপির বৈঠকে অংশ নিলেন ন্যাশনাল এসসি কমিশনের ভাইস চেয়ারম্যান অরুণ হালদার।

বিজেপির বৈঠকে জাতীয় তফসিলি কমিশনের ভাইস চেয়ারম্যান, তুঙ্গে বিতর্ক

  • কীভাবে একজন সরকারি আধিকারিক হয়ে বিজেপির বৈঠকে যোগ দিলেন তিনি?‌ প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। অবশ্য পালটা জবাব দিয়েছেন খোদ অরুণ হালদার।

এবার বিজেপির রাজ্য কমিটির বৈঠকে জাতীয় তফসিলি কমিশনের ভাইস চেয়ারম্যানের যোগ দেওয়ার অভিযোগ উঠল। আর তাতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজ্য–রাজনীতিতে। এমনকী নয়াদিল্লিতে নিজের দফতরে বসেই রাজ্য বিজেপির বৈঠকে অংশ নিলেন ন্যাশনাল এসসি কমিশনের ভাইস চেয়ারম্যান অরুণ হালদার। আবার নিজেই সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টও করেছেন। তাতেই তৈরি হয়েছে বিতর্ক। কীভাবে একজন সরকারি আধিকারিক হয়ে বিজেপির বৈঠকে যোগ দিলেন তিনি?‌ প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। অবশ্য পালটা জবাব দিয়েছেন খোদ অরুণ হালদার।

সূত্রের খবর, এই অরুণ হালদার রাজ্য বিজেপির অন্যতম সম্পাদক। যা তিনি প্রকাশ্যে আনেননি আগে। শুধু তাই নয়, দলের জাতীয় কর্মসমিতির সদস্যও ছিলেন। তবে এখন তিনি ন্যাশনাল এসসি কমিশনের ভাইস চেয়্যারম্যান হয়ে বিজেপির বৈঠকে থাকতে পারেন কি না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। এমনকী কমিশনের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষ টুইট করে বলেন, ‘‌কে এই অরুণ হালদার?‌ যিনি বিজেপির বৈঠকে ভার্চুয়ালি অংশ নিয়েছেন নয়াদিল্লি থেকে। তিনি কি ন্যাশনাল এসসি কমিশনের ভাইস চেয়ারম্যান? যদি তাই হয়, তাহলে দেখুন বিজেপি কিভাবে মিথ্যা গল্প তৈরি করে বাংলাকে বদনামের চেষ্টা করছে।’‌

এই বিষয়ে অরুণ হালদার বলেন, ‘‌এই কমিশনে যাঁরা এখনও পর্যন্ত নির্বাচিত হয়েছেন তাঁরা কোনও না কোনও রাজনৈতিক দল থেকে এসেছেন। তাছাড়া এই কমিশনে থাকলে রাজনীতিতে থাকতে পারবে না এমন কোনও কথা সংবিধানে লেখা নেই। আমি এখানে আসার পর আমার পুরনো রাজনৈতিক দলের হয়ে নির্বাচনের কাজ করিনি। আমার নৈতিকতা বিসর্জন দিইনি। দলের পদেও ইস্তফাপত্র দিয়েছি। আর আমি অভ্যন্তরীণ বৈঠকে অংশ নিয়েছি। কোনও বক্তব্য রাখিনি।’‌

বন্ধ করুন